বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া।
বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া।ছবি: প্রথম আলো

প্রায় পাঁচ বছর পর নেপালকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। ১৩ নভেম্বরের এই জয়ে মুজিব বর্ষ আন্তর্জাতিক সিরিজে এগিয়ে আছে স্বাগতিকেরা। আগামীকাল দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচে ড্র করলেই সিরিজ নিশ্চিত হবে জামাল ভূঁইয়াদের। তবে বাংলাদেশ অধিনায়ক জয়ের দিকে তাকিয়ে। হারলেই সমালোচনার ভয় তাড়িয়ে বেড়াচ্ছে জামাল ভূঁইয়াকে।

শুক্রবার নেপালের বিপক্ষে ম্যাচটি দিয়ে প্রায় ১০ মাস পর আন্তর্জাতিক ফুটবলে ফিরেছে বাংলাদেশ। ফেরাটাও হয়েছে ২-০ গোলের জয়ে। ফুটবল সমর্থকেরা এখনো মজে আছে নাবিব নেওয়াজ, মাহবুবুর রহমানদের গোলের সুরভিতে। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে হারলেই সে সুরভি উবে যেতে সময় লাগবে না। সব ভুলে আবার সমালোচনা শুরু হয়ে যাবে বলে মনে করেন জামাল।

বিজ্ঞাপন

আগামীকালের ম্যাচটিকে ফাইনাল হিসেবে নিচ্ছেন তিনি। আজ অনুশীলন শেষে হাসতে হাসতে জামাল বলছিলেন, ‘ম্যাচটি ফাইনালের মতো। জিতলে বাংলাদেশের ফুটবলের জন্য খুবই ভালো। হারলে সবাই পকপক করবে। সুতরাং আমাদের জিততেই হবে।’

বাংলাদেশ সর্বশেষ টানা দুটি ম্যাচ জিতেছিল ২০১৮ সালের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে। সেবার ঢাকায় গ্রুপ পর্বে ভুটান ও পাকিস্তানকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ জাতীয় দল। টানা তৃতীয় জয় হাতছানি দিলেও সেটা আর পাওয়া হয়নি। এই নেপালের বিপক্ষেই ২-০ গোলে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিতে হয়েছিল।

default-image

শুক্রবার নাবিব ও মাহবুবুরের দুর্দান্ত দুই গোলে এসেছে জয়। তবে পাসিং ফুটবলটি চোখে পড়েনি। ছিল মিস পাসও। এই প্রসঙ্গ উঠতেই জামাল বললেন, ‘মিস পাস তো হতেই পারে। আট মাস পর ফুটবল খেলেছি। আমরা জিতেছি। একটু খুশি থাকেন। হারলে না হয় সমালোচনা করবেন। ফলাফলটাই আসল।’

প্রধান কোচ জেমি ডের করোনা পজিটিভ হওয়ার খবর এসেছে গতকাল। অবশ্য কালই পুনরায় করোনা পরীক্ষা করিয়েছেন কোচ। আজ সে রিপোর্ট পাওয়ার কথা। তাতে ‘নেগেটিভ’ ফলাফল পেলে কোচ কাল মাঠেও ফিরতে পারেন। না থাকলেও খুব একটা সমস্যা হবে বলে মনে করেন না জামাল, ‘জেমি না থাকলে কোনো সমস্যা হবে না। স্টুয়ার্ট ( সহকারী কোচ স্টুয়ার্ট ওয়াটকিস) সব জানে। আমরা জেমির জন্য খেলব। জেমির জন্য জিততে চাইব। আশা করি সে আমাদের সঙ্গে আগামীকাল থাকবে।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0