default-image

বিশ্ব ফুটবল স্বস্তির নিশ্বাস ফেলেছে আজ। হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে যাওয়া বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইকার ক্যাসিয়াস সুস্থ হয়ে উঠেছেন। হাসপাতাল ছেড়ে নিজ বাড়িতেও ফিরেছেন। মাত্র পাঁচ দিন আগে হার্ট অ্যাটাক হওয়া একজনের প্রসঙ্গে এমন খবর বেশ স্বস্তি এনে দিতে বাধ্য। তবে সে সঙ্গে মন খারাপ করা একটি খবর ক্যাসিয়াস নিজেই জানালেন। ৩৭ বছর বয়সী এই গোলরক্ষক বলেছেন, কিছুদিন আগেও আরও দুই বছর খেলার স্বপ্ন দেখা ক্যাসিয়াস এখন আর অতটা নিশ্চিত নন ক্যারিয়ার নিয়ে।


২০১৫ সালে রিয়াল মাদ্রিদের কিংবদন্তি যোগ দিয়েছেন এফসি পোর্তোতে। সে ক্লাবের সঙ্গে চার বছর কাটিয়ে ফেলেছেন। নতুন চুক্তিতে সম্পর্কটা আরও দীর্ঘ করার কথা বলছিলেন কদিন আগে। এমন অবস্থায় হার্ট অ্যাটাক সব পরিকল্পনা বদলে দিয়েছে। আজ পোর্তোতে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে ক্যাসিয়াস বলেছেন, ‘এখন ভালো বোধ হচ্ছে। আগামী কয়েক সপ্তাহ বিশ্রামে থাকব, কে জানে কয়েক মাসও হতে পারে। সত্যি হলো, আমি এ নিয়ে চিন্তা করছি না। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো এই যে এখানে আছি সেটা। আমি জানি না ভবিষ্যৎ কী হবে।’

স্পেনের হয়ে ১৬৭টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা ক্যাসিয়াস পোর্তোর হয়ে এ মৌসুমে দুর্দান্ত খেলেছেন। পোর্তোর রক্ষণভাগই দলটিকে লিগে দ্বিতীয়স্থানে এনেছে। চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালেও খেলেছে পোর্তো। কদিন আগেই ক্যাসিয়াস বলেছেন ৪০ বছর পর্যন্ত তাঁকে থেকে যাওয়ার কথা বলেছে পোর্তো। কিন্তু নতুন পরিস্থিতিতে এখন আর খেলা নিয়ে চিন্তা করছেন না ক্যাসিয়াস, ‘সত্যি হলো, যেকোনোই যেকোনো মুহূর্তে ঘটতে পারে। এ নিয়ে কথা বলা কঠিন। তবে আমি কৃতজ্ঞ কারণ আমি খুবই ভাগ্যবান।’

হার্ট অ্যাটাকের ঘটনার পর বার্সেলোনার সাবেক গোলরক্ষক ও জাতীয় দলে ক্যাসিয়াসের সতীর্থ ভিক্টর ভালদেজ ইনস্টাগ্রামে আবেগময় এক স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন। সেখানে ক্যাসিয়াসের উদ্দেশ্যে ভালদেজ বলেছিলেন কিংবদন্তি ক্যাসিয়াসের আর প্রমাণ করার কিছু নেই। কে জানে, বন্ধুর কথাই মনে ধরল কি না ক্যাসিয়াসের!

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন