গোলের পর চেলসির এমারসনের উদ্‌যাপন।
গোলের পর চেলসির এমারসনের উদ্‌যাপন।ছবি: রয়টার্স

জোসে মরিনিও যাওয়ার পর আরও পাঁচজন কোচ এসেছেন—গাস হিডিংক, আন্তনিও কন্তে, মরিজিও সারি তাদের অন্যতম। কোচ হিসেবে এ সময়ের মধ্যে তাঁরা কেউ চেলসিকে চ্যাম্পিয়নস লিগে অন্তত কোয়ার্টার ফাইনালেও তুলতে পারেননি। টমাস টুখেলের হাত ধরে এই খরা কাটাল ইংলিশ ক্লাবটি। কাল রাতে চ্যাম্পিয়নস লিগ শেষ ষোলোর ফিরতি লেগে ঘরের মাঠে আতলেটিকো মাদ্রিদকে ২-০ গোলে হারিয়েছে চেলসি। দু্ই লেগ মিলিয়ে ৩-০ গোলের জয়ে ৭ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো ইউরোপসেরা ক্লাবের প্রতিযোগিতায় কোয়ার্টার ফাইনালের দেখা পেল লন্ডনের ক্লাবটি।

স্প্যানিশ ক্লাবটির মাঠে প্রথম লেগ ১-০ গোলে জিতে এসেছিল চেলসি। এতে আত্মবিশ্বাস জুটেছিল টুখেলের দলের। ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতার ইতিহাসে দুই লেগের ম্যাচে প্রতিপক্ষের মাঠে প্রথম লেগ জেতার পর চেলসি কখনোই বাদ পড়েনি। কালও সেই ধারা অব্যাহত থাকল। ৩৪ মিনিটে হাকিম জিয়েখের গোলে এগিয়ে যায় চেলসি। দ্বিতীয়ার্ধে যোগ করা সময়ে জয়ের ব্যবধান দ্বিগুণ করেন এমেরসন পালমেইরি।

প্রথমার্ধে পিছিয়ে পড়ার পর খেলায় আর ফিরতে পারেনি আতলেটিকো। উল্টো নির্ধারিত সময়ের ৯ মিনিট আগে আন্তনিও রুডিগারকে কনুই মেরে লাল কার্ড দেখেন স্তেফান সাভিচ। আতলেটিকোর একটি পেনাল্টির আবেদন নাকচ করে দেন রেফারি। ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ বেশির ভাগ সময় চেলসির ছিল মাঝমাঠ এনগোলো কাঁতে ও মাতেও কোভাচিচের বুদ্ধিদীপ্ত খেলায়। চেলসির ১৫০ মিলিয়ন পাউন্ড (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১৭৭২ কোটি টাকা) মূল্যের আক্রমণভাগ বেশ ভালোই বলের জোগান পেয়েছে মধ্যমাঠ থেকে। কাই হাভের্টজ, তিমো ভের্নার ও হাকিম জিয়েখ আক্রমণভাগে দারুণ খেলেছেন। আক্রমণভাগে কাড়ি কাড়ি টাকা খরচের ফল অবশেষে পেতে শুরু করেছে চেলসি।

default-image
বিজ্ঞাপন

ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের পর চেলসির কোচের দায়িত্ব নিয়ে পাশার দান উল্টে দেওয়ার কাজে টুখেলকে এখন পর্যন্ত সফল বলতেই হয়। তাঁর রক্ষণভাগ গতকালের ম্যাচটি নিয়ে ৫৯৭ মিনিট কোনো গোল হজম করতে দেয়নি দলকে। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এ নিয়ে ১৩ ম্যাচে চেলসিকে অপরাজিত রাখলেন এই জার্মান কোচ। চেলসির ইতিহাসে কোচের দায়িত্ব নিয়ে আর কেউ কখনো শুরুতে এত ম্যাচ অপরাজিত থাকার কীর্তি গড়তে পারেননি। কোচের দায়িত্ব নিয়ে মাত্র দুই মাসের ব্যবধানে চেলসিকে পাল্টে দিয়েছেন টুখেল। চেলসির হয়ে লুই ফেলিপে স্কলারির ১২ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড ভাঙার পাশাপাশি ২০১৩-১৪ মৌসুমে মরিনিওর পর প্রথম কোচ হিসেবে দলটিকে চ্যাম্পিয়নস লিগে শেষ আটে তুললেন ৪৭ বছর বয়সী টুখেল।

আক্রমণভাগে ভুগেছে আতলেটিকো। সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি লুইস সুয়ারেজ, মার্কোস লরেন্তো ও হোয়াও ফেলিক্স। ৫৯ মিনিটে সুয়ারেজকে তুলে আনহেল কোরেয়াকে নামান কোচ ডিয়েগো সিমিওনে। যোগ করা সময়ে গোল করার পরিষ্কার একটি সুযোগ পেয়েছিল আতলেটিকো। কিন্তু জোয়াও ফেলিক্সের শট রুখে দেন চেলসি গোলরক্ষক এডয়ার্ড মেন্দি।

default-image

শেষ ষোলোর ফিরতি লেগের অন্য ম্যাচে লাৎসিওকে ২-১ গোলে হারায় বায়ার্ন মিউনিখ। ৩৩ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করেন বায়ার্ন স্ট্রাইকার রবার্ট লেভানডফস্কি। দ্বিতীয়ার্ধে বায়ার্নের হয়ে গোলটি চুপো মোতিংয়ের। ৮২ মিনিটে পারোলোর গোলে ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করেছিল ইতালিয়ান ক্লাবটি। কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে যায়। দুই লেগ মিলিয়ে ৬-২ গোলের জয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠল বায়ার্ন। চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে এ নিয়ে সর্বোচ্চ ১৯তম বার শেষ আটে উঠল জার্মান ক্লাবটি।

চ্যাম্পিয়নস লিগে কাল ফিরতি লেগের ম্যাচগুলোর মধ্য দিয়ে নিষ্পত্তি ঘটল শেষ ষোলোর। নিশ্চিত হলো কোয়ার্টার ফাইনালের আট দল—চেলসি, লিভারপুল, ম্যানচেস্টার সিটি, পিএসজি, বায়ার্ন মিউনিখ, বরুসিয়া ডর্টমুন্ড, পোর্তো ও রিয়াল মাদ্রিদ। কাল কোয়ার্টার ফাইনালের ড্র অনুষ্ঠিত হবে।

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন