বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সাফল্যের ধারাবাহিকতা ধরে রেখে এবারও বসুন্ধরাই লিগ চ্যাম্পিয়ন হবে, এমনটা মনে হচ্ছিল বেশ আগে থেকেই। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আবাহনী ক্রমে পিছিয়ে পড়ায় কাজটা সহজ হয়েছে অনেক। শেষ পর্যন্ত ৪ ম্যাচ হাতে রেখেই লিগ জিতে নিল লাল জার্সিধারীরা।

default-image

২০ ম্যাচে ৫৫ পয়েন্ট পাওয়া বসুন্ধরা কিংস এখন সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে। সমান ম্যাচ শেখ জামালের ১৯ ম্যাচে ৩৯ পয়েন্ট। ১৯ ম্যাচে ৩৭ পয়েন্ট আবাহনীর।

শিরোপা নিশ্চিত করে আজ বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে বড় কোনো উৎসব করতে পারেনি বসুন্ধরা। করোনাকালে দর্শকশূন্য স্টেডিয়াম খাঁ খাঁ করছিল। তবে ‘চ্যাম্পিয়ন’ লেখা টিশার্ট নিয়ে এসেছিল বসুন্ধরা কর্তৃপক্ষ। ম্যাচ শেষ হতেই সেই টিশার্ট পরেন বসুন্ধরার ফুটবলাররা। তারপর আনন্দ, উল্লাস, ছবি তোলার কাজ চলেছে মিনিট পাঁচেক। মাঠ খালি করে দিতে হয়েছে দ্রুতই। কারণ, এই ম্যাচের পরপরই একই মাঠে শুরু হওয়ার কথা আবাহনী-আরামবাগ ম্যাচ।

default-image

কোচ শফিকুল ইসলাম মানিককে ম্যাচ শুরুর ৩ ঘণ্টা আগে ছাঁটাই করে শেখ জামাল! আগের ম্যাচে আবাহনীর বিপক্ষে ২-০ গোলে গিয়েও কেন শেষ পর্যন্ত শেখ জামাল ড্র করেছে, এটাই নাকি হঠাৎ কোচ বিদায়ের বড় কারণ। যদিও সাদামাটা দল নিয়েও লিগে এবার দারুণ ফল করেছে শেখ জামাল।

শফিকুলের বদলে আজ শেখ জামালের ডাগআউট দাঁড়ান গোলকিপার কোচ মোশাররফ বাদল। তিনি চেয়েছিলেন, বসুন্ধরার মতো শক্তিধর দলের সঙ্গে জয় না হোক অন্তত ড্র নিয়ে ফিরতে। সেই সেই সামর্থ্যও দলটির আছে। লিগের প্রথম পর্বে বসুন্ধরা একমাত্র শেখ জামালের কাছেই হারতে বসেছিল। কিন্তু গাম্বিয়ান স্ট্রাইকার ওমর জোবের গোল বাতিল করেন রেফারি। শেষ পর্যন্ত ২-২ গোলে সেই ম্যাচ ড্র হয়।

আজ ফিরতি ম্যাচে জ্বলে উঠতে পারেনি শেখ জামাল। দলের নির্ভরযোগ্য উজবেক মিডফিল্ডার ওতাবেক ছিলেন না। বসুন্ধরা কিংসের আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার রাউল বেসেরাও চোটের কারণে খেলতে পারেননি এ ম্যাচ।

default-image

তবে বসুন্ধরার মূল ফরোয়ার্ড ব্রাজিলিয়ান রবসন ছিলেন এবং যথারীতি ঝলক দেখান। ২১ মিনিটে স্বদেশি জোনাথনের ঠেলে দেওয়া বল ২৫ গজ দূর থেকে দারুণ শটে ১-০ করে দেন রবসন। চলতি লিগে এটি তাঁর ১৯তম গোল। ৪৪ মিনিটে ১-১ হতে পারত। কিন্তু শেখ জামালের গাম্বিয়ান ফরোয়ার্ড সোলেমান সিল্লাহর হেড লাগে ক্রসবারে। ৬২ মিনিটে বক্সের বাইরে থেকে জোনাথনে গড়ানো শটে ২-০। লিগে এটি তাঁর সপ্তম গোল।

ম্যাচের বাদবাকি সময়ে শেখ জামাল আর ম্যাচে ফিরে আসতে পারেনি। বসুন্ধরা কিংস জিতে নিয়েছে আরেকটি ম্যাচ এবং আরেকটি শিরোপা।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন