৪৩ মিনিটে নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার এমেকা এগিয়ে নেন সাইফকে। ৫৭ মিনিটে ১–১ করেন চট্টগ্রাম আবাহনীর আফগান মিডফিল্ডার অমিদ পোপালজাই। এরপর নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার ক্যান্ডির গোলে চট্টগ্রাম আবাহনী ২–১ করেছে।

কিন্তু ৭২ ও ৭৪ মিনিটে জোড়া গোল করে ৩–২ ব্যবধানে এগিয়ে দেন সাইফকে। ৮৭ মিনিটে থ্যাংকগড ম্যাচে ফেরান চট্টগ্রাম আবাহনীকে। ৩–৩ সমতা আসে ম্যাচে। কিন্তু যোগ করা সময়ে বাইসেঙ্গির গোল নাটকীয়ভাবে ৩ পয়েন্ট এনে দেয় সাইফকে।

default-image

চলতি প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় পর্বে বসুন্ধরা কিংসের পর টানা ৫ ম্যাচ জিতল সাইফ। এই পর্বের শুরুতে ক্লাবটির নেতৃত্ব বদল হয়েছে, বদল হয়েছে অধিনায়কও। জামাল ভূঁইয়ার জায়গায় নতুন অধিনায়ক হয়েছেন ডিফেন্ডার রিয়াদুল হাসান। রিয়াদুল এখন পর্যন্ত অধিনায়ক হিসেবে ষোলো আনা সফল। জিতেছেন পাঁচে পাঁচ।

কোচ ডিয়োগো আন্দ্রেস ক্রুসিয়ানিরও দারুণ সময় যাচ্ছে। ম্যাচ শেষে তাই চওড়া হাসি ছিল বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক এই আর্জেন্টাইন কোচের মুখে, এ মৌসুমে যিনি সাইফ স্পোর্টিংয়ের দায়িত্ব নিয়েছেন। লিগে তাঁর অধীনে এখন পর্যন্ত সাইফ ১৬ ম্যাচে ৯টি জিতেছে, ৩ ড্র আর ৪টি হার। এই ধারা ধরে রাখতে পারলে রানার্সআপ হওয়ার দৌড়েও থাকবে সাইফ। দুইয়ে থাকা আবাহনী এগিয়ে মাত্র ৫ পয়েন্ট। ম্যাচ বাকি ৬টি। যেকোনো কিছুই হতে পারে।

আজকের জয়ে চলতি প্রিমিয়ার লিগে এই প্রথম তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে সাইফ। গতকাল শেখ রাসেলের কাছে হেরে ১৬ ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে তিনে ছিল শেখ জামাল। আজ চট্টগ্রাম আবাহনীকে হারিয়ে সমান ১৬ ম্যাচ ৩০ পয়েন্ট হলো সাইফেরও। তবে গোলগড়ে তৃতীয় স্থানে সাইফ, যা দলটির আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিয়েছে।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন