জাতীয় ফুটবল দলে করোনা

৭ জন দুই জায়গায় পজিটিভ, ৩ জনকে ঘিরে পজিটিভ-নেগেটিভ ধোঁয়াশা

বিজ্ঞাপন
default-image

২৪ ফুটবলারের মধ্যে ১৮জনই ছিলেন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। পরীক্ষা করা হয়েছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ)। খবরটা দেশের ফুটবল ছাপিয়ে সবার কাছেই ছিল চমকে ওঠার মতো। এত বেশি সংখ্যক ফুটবলার করোনায় আক্রান্ত দেখে তিন দিনের মাথায় আবার পরীক্ষার উদ্যোগ নেয় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ( বাফুফে)।

এবার দুটি হাসপাতালে ৩০ জন ফুটবলারের করোনা পরীক্ষা হয়েছে। দুই জায়গাতেই ২০ জন ফুটবলারের করোনা নেগেটিভ এসেছে। ৩ জনের এক জায়গায় পজিটিভ আরেক জায়গায় নেগেটিভ এসেছে (রিয়াদুল হাসান, রায়হান হাসান ও রাকিব হোসেন)। বাকি ৭ জন দুই জায়গাতেই পজিটিভ । তাঁরা হলেন—এসএম বাবলু, রবিউল হাসান, ফয়সাল আহমেদ, টুটুল হোসেন, শহিদুল আলম, আনিসুর রহমান ও বিশ্বনাথ ঘোষ।

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন আজ এই তথ্য জানিয়েছে। বাফুফে আরও জানায়, নেগেটিভ ও পজিটিভ দুরকম ফল আসা ৩ ফুটবলারকে বিশেষ পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে করোনাক্রান্ত ৭ জনের। তবে সেটি গাজীপুরের সারাহ রিসোর্টে নয়। জাতীয় দলের ক্যাম্প আপাতত স্থগিত করা হয়েছে। আগামীকাল সবাই ক্যাম্প থেকে ফিরে যাবেন যে যাঁর ঠিকানায়।

বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের খেলা অক্টোবর-নভেম্বরে হচ্ছে না বলেই ক্যাম্প বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাফুফে। মূলত কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে বিমান যাতায়াতে সমস্যার কারণ দেখিয়ে খেলা পিছিয়ে দিয়েছে এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি)। আগামী বছরের শুরুর দিকে হতে পারে বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের যৌথ বাছাইপর্বের বাকি ৪ রাউন্ড।

বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম বলেছেন, ‘জাতীয় দলের ক্যাম্প পুনরায় কবে শুরু হবে, সে ব্যাপারে সময়মতো সিদ্ধান্ত নেবে বাফুফে। আপাতত করোনা আক্রান্ত ফুটবলারদের চিকিৎসার বিষয়টি বাফুফে দেখভাল করবে।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন