'কিংবদন্তি তিনি অনেক আগে থেকেই' - ক্যাসিয়াসকে মেসির আবেগময় শুভেচ্ছা

বিজ্ঞাপন
default-image

মাঠে বার্সেলোনার সঙ্গে রিয়াল মাদ্রিদের লড়াইটা সব সময়ই উপভোগ্য। লড়াইটা জমত বার্সা ফরোয়ার্ড লিওনেল মেসির সঙ্গে রিয়ালের সাবেক গোলরক্ষক ইকার ক্যাসিয়াসেরও। ফুটবল থেকে গতকাল আনুষ্ঠানিক বিদায় নিয়েছেন ক্যাসিয়াস। স্পেনের এই কিংবদন্তি ফুটবলারের বিদায়ে পুরোনো সেই লড়াইয়ের স্মৃতি ফিরিয়ে এনেছেন মেসি। ক্যাসিয়াসকে উদ্দেশ করে স্প্যানিশ দৈনিক এএসে জানিয়েছেন এক আবেগময় বার্তা।

রিয়াল মাদ্রিদে ক্যারিয়ার শুরু ক্যাসিয়াসের। এই ক্লাবেই কাটিয়েছেন বেশির ভাগ সময়। ১৯৯৯ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত টানা ১৬ বছরের ক্যারিয়ারে রিয়ালের হয়ে খেলেছেন ৭২৫টি ম্যাচ। পাঁচবার লা লিগা ও তিন বার চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছেন রিয়ালের হয়ে। এক সময় হয়ে ওঠেন ক্লাবটির আস্থার প্রতীক। ২০১৫ সালে পোর্তোয় যোগ দেওয়ার পর জিতেছেন দুবার পর্তুগিজ লিগ। স্পেনের হয়ে জিতেছেন ইউরো-বিশ্বকাপ-ইউরোর ত্রিমুকুট।

৩৯ বছর বয়সী ক্যাসিয়াসের বিদায়ে বেশ আবেগী হয়ে পড়েন মেসি, ‘ইকার আজ অবসর নিচ্ছেন, কিন্তু খেলাটায় তাঁর কিংবদন্তি মর্যাদা প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেছে আরও অনেক আগেই। সেটি শুধু স্প্যানিশ লিগের ইতিহাসের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় হিসেবেই নয়, আন্তর্জাতিক ফুটবলেও তিনি সবকিছু জিতেছেন বলে।’

এল ক্লাসিকোয় দুজন মুখোমুখি হয়েছেন বহুবার। কখনো মেসি গোল করেছেন, তখন রিয়ালের পোস্টের নিচে হতাশ দাঁড়িয়ে থেকেছেন ক্যাসিয়াস। আবার কখনো মেসির শট ক্যাসিয়াস ঠেকিয়ে দিয়েছেন দুর্দান্ত দক্ষতায়। ক্যাসিয়াসের গ্লাভস তুলে রাখার মুহূর্তে মেসির কণ্ঠে কিংবদন্তির জন্য শ্রদ্ধা, ‘আপনি অসাধারণ একজন গোলকিপার। সত্যিকারের কঠিন প্রতিপক্ষও। পেছন ফিরে তাকালে বুঝি, আমাদের প্রতিদ্বন্দ্বিতাটা বিশেষ কিছু ছিল। যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা প্রতিবারই মুখোমুখি হওয়ার সময়ে আমাদের নিজেদের ছাপিয়ে যেতে উদ্বুদ্ধ করেছে।’

গত বছর পোর্তোর হয়ে খেলার সময় হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন ক্যাসিয়াস। এরপর ধীরে ধীরে সেরে ওঠেন। কিন্তু প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক ফুটবলে আর ফেরা হয়নি। কিন্তু ক্যারিয়ার শেষ করে কোনো অতৃপ্তি নেই ক্যাসিয়াসের। অবসর ঘোষণা দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘আপনার চলার পথে কোথায় গিয়ে শেষ করলেন সেটা গুরুত্বপূর্ণ নয়। গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে আপনার পেরিয়ে আসা পথ এবং সেখানে সঙ্গী ছিল কারা সেটা। কোনো দ্বিধা ছাড়াই বলতে পারি আমি ঠিক পথটাই পেরিয়ে এসেছি এবং স্বপ্নের গন্তব্য শেষ করেছি।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন