বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

মেয়েদের কোয়ার্টার ফাইনালে দিয়া সিদ্দিকী ১-৭ সেট পয়েন্টে হেরেছেন দক্ষিণ কোরিয়ার আর্চার জাং দাসোমির কাছে। প্রথম রাউন্ডে বাই পাওয়া দিয়া দ্বিতীয় রাউন্ডে ৬-৪ সেট পয়েন্টে হারিয়ে দেন কাজাখস্তানের আর্চার আবদারাজাক আরুঝানকে।

এরপর প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে দিয়া ৬-৪ সেট পয়েন্টে হারিয়েছেন ভারতের এক নম্বর আর্চার অঙ্কিতা ভাকাতকে। কিন্তু কোয়ার্টার ফাইনালে এসে খেই হারিয়ে ফেলেন তিনি।
বাংলাদেশের আরেক আর্চার শ্রাবণী আক্তার প্রথম রাউন্ডে টাইব্রেকে ৯-৮ সেট পয়েন্টে হারিয়েছেন ভিয়েতনামের নি থানথি এনগুয়েনকে। কিন্তু প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে ৬-০ সেট পয়েন্টে হেরেছেন ভারতের রিধির কাছে। অন্য ম্যাচে উজবেকিস্তানের মুনিরা নুরামানোভাকে প্রথম রাউন্ডে ৬-২ সেট পয়েন্টে হারিয়েছেন নাসরিন আক্তার। কিন্তু তিনি দক্ষিণ কোরিয়ার ও ইয়েজিনের কাছে ৪-৬ সেট পয়েন্টে হেরেছেন প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে।

default-image

পুরুষ এককের অন্য দুই আর্চার রামকৃষ্ণ সাহা ও আবদুর রহমানও হতাশ করেছেন। রামকৃষ্ণ দ্বিতীয় রাউন্ডে শ্রীলঙ্কার চন্দনা আবেগুনাসাকেরাকে ৬-৪ সেট পয়েন্টে হারালেও প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে হেরে গেছেন। শেষ ১৬–তে তিনি হেরেছেন ভারতের পার্থ সুশান্তের কাছে ৬-৪ সেট পয়েন্টে। আবদুর রহমান দ্বিতীয় রাউন্ডে শ্রীলঙ্কার সজীব ডি সিলভাকে ৬-৪ সেট পয়েন্টে হারিয়েছেন। কিন্তু প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে দক্ষিণ কোরিয়ার কিম পিল জুংয়ের কাছে হারেন ০-৬ সেট পয়েন্টে।

এককে বিদায় নিলেও এবার দলগত ইভেন্টে সব মনোযোগ বাংলাদেশের। কোরিয়ার কাছে হারলেও হতাশ নন দিয়া, ‘নিজের পারফরম্যান্সে আমি সন্তুষ্ট। সত্যি বলতে, প্রতিপক্ষ হিসেবে ভারত ও কোরিয়া সব সময় শক্তিশালী। কিন্তু প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে অঙ্কিতার সঙ্গে জিতেছি। সে ভারতের এক নম্বর খেলোয়াড়। ওকে হারানোর পর ভেবেছিলাম পরের রাউন্ডেও সেরাটা দিয়ে লড়ব। কিন্তু কোরিয়ার সঙ্গে পারিনি। তবে আজ আমার শুটিং ও স্কোর ভালো হয়েছে।’

default-image

সতীর্থ হাকিম আহমেদের কাছে হেরে বাদ পড়লেও দুঃখ নেই রোমানের, ‘গত দিনের তুলনায় আজ আমার শুটিং ও টাইমিং ভালো হয়েছে। স্কোর তুলনা করলে অন্য কারও বিপক্ষে হলে এ ম্যাচ জিতে যেতাম, তবে ম্যাচটা বিশ্বমানের হয়েছে। হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করে হেরেছি। তা ছাড়া ও খুব ভালো মেরেছে। এবার আমাদের লক্ষ্য টিম ইভেন্টে ভালো করা। অবশ্যই পদকের জন্য লড়াই করব আমরা।’

অলিম্পিকে সোনাজয়ী লির কাছে এর আগেও তিনবার হেরেছেন হাকিম। আজ হেরে যাওয়ায় আবারও হতাশ তিনি, ‘লি আসলে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন, অলিম্পিকে সোনাজয়ী। ওদের মানের ধারেকাছেও নেই আমরা। যদিও এখানে সেমিফাইনালে খেলার ইচ্ছা ছিল। তবে দুর্ভাগ্য যে আগেই হেরে গেলাম।’

অন্য খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন