default-image

বাংলাদেশ কোচ গোবিনাথন আজকের ম্যাচের আগে স্কোরিং সমস্যা নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলেন। কারণ, গ্রুপের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ মাত্র ১–০ গোলে হারায় সিঙ্গাপুরকে। অথচ দুই মাস আগে এই দলের বিপক্ষেই জয় আসে ৭–০ গোলে। তা ছাড়া এই এশিয়ান গেমস হকির বাছাইয়ে প্রথম দুটি গ্রুপ ম্যাচে ইন্দোনেশিয়া ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশ গোল করে ৩টি করে। যদিও প্রত্যাশা ছিল আরও বেশি গোলের।

বাংলাদেশ কোচ মনে করেন আরও বড় ব্যবধানে জেতার সামর্থ্য আছে বাংলাদেশের। কিন্তু স্ট্রাইকারদের ব্যর্থতায় বড় জয় আসছিল না। ভালো খবর যে টুর্নামেন্টে আজই সবচেয়ে বেশি গোল করেছে বাংলাদেশ।

default-image

ম্যাচের প্রথম গোলটা করেছে থাইল্যান্ড। প্রথম কোয়ার্টারের ১০ মিনিটে তারা ফিল্ড গোলে ১–০ করেছে। দ্বিতীয় কোয়ার্টারের সপ্তম মিনিটে ১–১ করেন বাংলাদেশের রোমান সরকার। এরপর জ্বলে ওঠে পেনাল্টি কর্নার বিশেষজ্ঞ আশরাফুল ইসলামের স্টিক। টানা দুটি গোল করে ম্যাচটা বাংলাদেশের হাতে এনে দেন এই ডিফেন্ডার। পেনাল্টি কর্নারে ২-১ করেন দ্বিতীয় কোয়ার্টারের ১৪ মিনিটে। তৃতীয় কোয়ার্টারের পঞ্চম মিনিটে করেন ৩-১।

চতুর্থ কোয়ার্টারের দ্বিতীয় মিনিটে রকিবুল হাসানের ফিল্ড গোলে ৪–১। বাকি সময়ে থাইল্যান্ড আর মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেনি। ফেবারিট হিসেবে বাংলাদেশই শিরোপা লড়াইয়ের শেষ ধাপে পা রেখেছে। এ নিয়ে টানা ১০টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ জিতল বাংলাদেশ হকি দল।

অন্য খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন