সাসাকি।
সাসাকি।ফাইল ছবি: রয়টার্স

টোকিও অলিম্পিক ঘিরে বিতর্ক বেড়েই চলছে। করোনা মহামারির কারণে এমনিতেই অলিম্পিক পিছিয়ে এ বছর আনা হয়েছে। এর মধ্যে জাপানের আয়োজকদের নানা বিতর্কিত মন্তব্যে সমালোচনারও ঝড় উঠেছে। টোকিও অলিম্পিক আয়োজনে সৃষ্টিশীল কাজের প্রধান হিরোশি সাসাকির মন্তব্য তার সাম্প্রতিকতম উদাহরণ। ‘জাপানের বিয়ন্স’খ্যাত নাওমি ওয়াতানাবের উদ্দেশে অবমাননাকর কথা বলার পরিণতি হিসেবে দায়িত্ব ছাড়তে হয়েছে সাসাকিকে।

জাপানে ২৩ জুলাই থেকে অলিম্পিক শুরু হওয়ার কথা। ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’খ্যাত আসরটির উদ্বোধন ও সমাপনী অনুষ্ঠানের ক্রিয়েটিভ–প্রধানের দায়িত্বে ছিলেন সাসাকি। একটি পরিকল্পনা গ্রুপের সঙ্গে অনলাইনে গ্রুপ চ্যাটে ওয়াতানাবের প্রতি বাজে মন্তব্য করেন সাসাকি। সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ওয়াতানাবে ‘অলিম্পিগ’–এর ভূমিকা পালন করতে পারেন বলে মন্তব্য করেন তিনি। জাপানের বিনোদন জগতে ভীষণ জনপ্রিয় ওয়াতানাবে। অভিনেত্রী, কমেডিয়ান ও ফ্যাশন ডিজাইনার হিসেবে খ্যাতি কুড়িয়েছেন ৩৩ বছর বয়সী এই নারী। জাপানের এক ভ্যারিটি শো-তে যুক্তরাষ্ট্রের খ্যাতিমান গায়িকা বিয়ন্স নোয়েলসের একটি গানে ঠোঁট মিলিয়ে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে উঠে যান ওয়াতানাবে। ইনস্টাগ্রামে তাঁর অনুসারীর সংখ্যা ৯.৩ মিলিয়ন।

বিজ্ঞাপন
default-image

ওয়াতানাবে গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকের উদ্ধোধনী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে কেমন পারফরম্যান্স করতে পারেন, সে প্রসঙ্গে ওই অবমাননাকর মন্তব্য করেন সাসাকি। আজ পদত্যাগের ঘোষণা দিয়ে বিবৃতিতে সাসাকি বলেন, ‘আমার মন্তব্য এবং অর্থটা ছিল ভীষণ অনুপুযুক্ত। আমি তার কাছে ক্ষমা চাইছি এবং আমার কথায় যাঁরা আঘাত পেয়েছেন, তাঁদের কাছেও ক্ষমা চাইছি।’ টোকিও অলিম্পিক আয়োজনের সভাপতি সেইকো হাশিমোতোকে আগের দিনই পদত্যাগের কথা জানান সাসাকি।

টোকিও অলিম্পিক আয়োজনের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের বিতর্কিত মন্তব্য এই প্রথম নয়। গত মাসে অলিম্পিক আয়োজক কমিটির প্রধানের পদ ছাড়েন জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিরো মোরি। সেটিও এক বিতর্কিত মন্তব্যের কারণে। তিনি বলেছিলেন, মেয়েরা মিটিংয়ে বেশি কথা বলে। এর দুই বছর আগে জাপানের অলিম্পিক কমিটির প্রধান সুনেকাজু তাকেদাও বাধ্য হয়ে দায়িত্ব ছাড়েন। তাঁর বিরুদ্ধে ঘুষ দিয়ে ভোট কেনার অভিযোগ উঠেছিল এবং আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির সদস্যরাও এর সঙ্গে জড়িত বলে অভিযোগ রয়েছে।

অন্য খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন