কাবাডি ফেডারেশনের সদস্য হলেন অপু বিশ্বাস
কাবাডি ফেডারেশনের সদস্য হলেন অপু বিশ্বাসছবি: প্রথম আলো

একসময়ের ব্যস্ত চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসকে দেখা যাবে কাবাডি ফেডারেশনে। বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশনের কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সদস্য পদে নির্বাচিত হয়েছেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় এ অভিনেত্রী। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ থেকে মনোনীত পাঁচ কাউন্সিলরের একজন হিসেবেই কাবাডি ফেডারেশনের সদস্য হয়েছেন তিনি। নিয়ম অনুযায়ী, ফোডারেশনে কাউন্সিলর না হলে কেউ ভোটার হতে পারে না। আর ভোটার না হলে নির্বাচনে দাঁড়ানো যায় না। কাবাডির ২৫ সদস্যের কমিটিতে একমাত্র অপু বিশ্বাসই নারী। এ কমিটির সাধারণ সম্পাদক পুলিশ কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান।

চলচ্চিত্র অঙ্গনে ইদানীং খুব বেশি ব্যস্ততা নেই অপু বিশ্বাসের। অথচ একটা সময়ে তাঁর বছরে ১০টি সিনেমাও মুক্তি পেয়েছে। সেগুলোর বেশির ভাগই নায়ক ছিলেন শাকিব খান। গত তিন বছরে অপু বিশ্বাসের সিনেমার সংখ্যা শূন্যের কোটায় নেমে এসেছে। ২০০৪ সালে ‘কাল সকালে’ সিনেমা দিয়ে চলচ্চিত্রে অভিষেক অপু বিশ্বাসের। এরপর ‘কোটি টাকার কাবিন’ সিনেমায় প্রধান নায়িকা হিসেবে অভিনয় করেন শাকিব খানের বিপরীতে। ২০০৭ সালে মান্নার বিপরীতে ‘মেশিনম্যান’ সিনেমায় অভিনয় করেন। এরপর ‘পিতার আসন’, ‘চাচ্চু’, ‘দাদীমা’, ‘ভালোবাসার লাল গোলাপ’, ‘মিয়া বাড়ির চাকর’, ‘মাই নেম ইজ খান’, ‘সম্রাট’, ‘রাজনীতি’সহ একাধিক ব্যবসাসফল চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ২০০৬ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত অপু-শাকিব জুটি গড়ে একাধারে ৭০টির মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন। অপু বিশ্বাসের বেশির ভাগ ছবিই ছিল সুপারহিট।

default-image
বিজ্ঞাপন

২০০৮ সালে গোপনে শাকিব খানের সঙ্গে অপু বিশ্বাসের বিয়ে হলেও সেটা জানাজানি হয় ২০১৭ সালে। বিয়ের কথা জনসম্মুখে আসার পর থেকে শাকিব ও অপুর মধ্যে সম্পর্কের টানাপোড়েন শুরু হয়। দুজনের মধ্যে সম্পর্কের দূরত্ব দিন দিন বাড়তেই থাকে। শেষ পর্যন্ত ২০১৮ সালে আনুষ্ঠানিকভাবেই শাকিব-অপুর বিবাহবিচ্ছেদ হয়। এরপর থেকে মূলত অপু বিশ্বাসের অভিনয়ের ব্যস্ততা অনেকটা কমে গেছে।

চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসকে কাবাডির কমিটিতে নেওয়ার ব্যাপারে ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক এস এম নেওয়াজ সোহাগ বলেন, ‘বিভিন্ন সময়ে আমরা কাবাডির প্রচারণার জন্য অনেক নায়ক-নায়িকাকে খেলা উদ্বোধন করতে এনেছি। এর মধ্যে অপু বিশ্বাসের কথাবার্তা ও ব্যবহার আমাদের ভালো লেগেছে। উনি কাবাডির শুভেচ্ছাদূত হিসেবে সারা দেশে কাজ করবেন। কাবাডিকে আরও জনপ্রিয় করতে তাঁর তারকাখ্যাতিকে আমরা কাজে লাগাতে চাই।’

দেশের অন্যতম জনপ্রিয় খেলা কাবাডি এত দিন পরিচালনা করা হচ্ছিল অনির্বাচিত কমিটি দিয়ে। অবশেষে ৯ বছর পর আবারও কাবাডি ফেডারেশনের নির্বাচনের ঘোষণা করে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ। ২৪ মার্চ হওয়ার কথা ছিল কাবাডি ফেডারেশনের সেই নির্বাচন। কিন্তু কার্যনির্বাহী কমিটির কোনো পদেই একাধিক নাম জমা না পড়ায় নির্বাচনের কোনো প্রয়োজনই পড়েনি।

অন্য খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন