বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

মেরিনার্সের হয়ে জোড়া গোল করেছেন সোহানুর রহমান। অন্য গোলটি প্রদীপ মোরের। মোহামেডানের হয়ে গোল করেছেন গঞ্জালো পেইলাত ও সারোয়ার হোসেন। এই মৌসুমে মোহামেডানকে দুই ম্যাচেই হারিয়েছে মেরিনার্স। প্রিমিয়ার হকি লিগে এটি মেরিনার্সের দ্বিতীয় শিরোপা। এর আগে ২০১৬ সালে প্রথম শিরোপা জেতে ক্লাবটি। এ মৌসুমের প্রথম ট্রফি ক্লাব কাপও গেছে মেরিনার্সের ঘরে।

শিরোপার উৎসব দুই দিন আগেই করতে পারত মেরিনার্স। সেদিনও এক পয়েন্ট পেলেই চলত মেরিনার্সের। কিন্তু লিগে টানা ১৩ ম্যাচ জয়ী মেরিনার্সকে নাটকীয় ম্যাচে ৪-৩ গোলে হারিয়ে দেয় আবাহনী। এরপর মোহামেডান, আবাহনী ও মেরিনার্সের তিন দলের সামনেই শিরোপার দুয়ার খুলে যায়। আজ মেরিনার্স হারলে তিন দলেরই শিরোপা জেতার সুযোগ ছিল। কিন্তু সেই সুযোগ আজ আর দেয়নি মেরিনার্স।

default-image

ম্যাচের ১০ মিনিটে পেনাল্টি কর্নার থেকে গোল করে মোহামেডানকে এগিয়ে নেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড গঞ্জালো পেইলাত। গোল খেয়ে যেন হুশ ফেরে মেরিনার্সের। ১৫ মিনিটে পেনাল্টি কর্নার থেকে সোহানুর রহমানের ড্র্যাগ ফ্লিকে মেরিনার্স সমতায় ফেরে। প্রথম কোয়ার্টারে মেরিনার্সের খেলোয়াড়েরা একটু স্নায়ুচাপে ভুগছিলেন। কিন্তু সময় যতই গড়িয়েছে, খোলস ছেড়ে বেরিয়ে এসেছেন মামনুর রহমানেরা।

পুরো ম্যাচে মোহামেডান আক্রমণ করেও গোল বের করতে পারেনি। ১০টি পেনাল্টি কর্নার থেকে গোল হয়েছে মাত্র ১টি। মোহামেডানের আক্রমণের বড় ভরসা আর্জেন্টাইন জোয়াকিম মেনিনি ও পেইলাত চেষ্টা করেও সফল হতে পারেনি আজ।
ম্যাচের ২৫ মিনিটে আবারও পেনাল্টি কর্নার থেকে সোহানুরের গোলে স্কোর ২-১ করে মেরিনার্স। আর ৫১ মিনিটে প্রতি আক্রমণ থেকে প্রদীপের হিটে ৩-১ হলে মোহামেডান ম্যাচ থেকে প্রায় ছিটকেই যায়। ম্যাচ শেষের তিন মিনিট আগে সারোয়ার হোসেনের গোলে আবারও খেলায় ফেরার চেষ্টা করে মোহামেডান। কিন্তু বাকি সময় আর কোনো গোল না হওয়ায় শিরোপা উৎসব করেই মাঠ ছেড়েছে মেরিনার্স।

অন্য খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন