বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এনএফএলের দল ক্যারোলাইনা প্যানথার্সের লোগো চিতা। শার্লটে দলটির স্টেডিয়ামের সম্মুখে চিতার একটি স্থাপত্যও রয়েছে। সেদিন নিউইয়র্ক জেটসের বিপক্ষে ম্যাচ ছিল ক্যারোলাইনা প্যানথার্সের।

মাঠে উপস্থিত দর্শকেরা দেখলেন, হুট করে একটি বিশাল চিতাবাঘ লাফিয়ে ঢুকল স্টেডিয়ামে। গ্যালারি থেকে এক লাফে দাঁড়াল জায়ান্ট স্ক্রিনের ওপর। সেখানে একটি ব্যানার থাবার নখরে ছিঁড়েখুঁড়ে লাফ দিয়ে নামল মাঠে। তারপর আবারও এক লাফে হুট করে মিলিয়েও গেল। ব্যাপার কী!

আসলে দর্শককে আনন্দ দিতে ক্যারোলাইনা প্যানথার্স এদিন থ্রি-ডি ভিডিও শোর আয়োজন করেছিল। ডিজিটাল ভিডিও ডিসপ্লেতে সেই মিশ্র-বাস্তব চিতা তৈরি করা হয় গেম ইঞ্জিন ‘আনরিয়েল ইঞ্জিন’–এর মাধ্যমে। ‘দ্য ফেমাস গ্রুপ’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান এই ডিজিটাল শোর আয়োজন করে।

মাঠে এমন বিস্ময়কর থ্রি–ডি ডিজিটাল শো এই প্রথম নয়। ২০১৯ সালে এনএফএলের দল বাল্টিমোর র‌্যাভেনস এমন থ্রি–ডি শো করেছে স্টেডিয়ামে। তখন স্টেডিয়ামে ডিজিটাল কাক দেখানো হয়।

আর্জেন্টাইন ফুটবলেও এমন কিছু দেখা গেছে ২০১৯ সালে। ঘরোয়া দল এস্তুদিয়ান্তে নিজেদের মাঠে ফেরার উপলক্ষ রাঙাতে স্টেডিয়ামের ছাদের ওপর হাজির করেছিল আগুনের এক সিংহকে। ক্লাবটির ডাকনাম এল লিওন (সিংহ)। হলোগ্রামের সে সিংহ গ্যালারির পুরো একদিক হেঁটে বেড়ায়। দক্ষিণ আমেরিকায় কোনো স্টেডিয়ামে হলোগ্রামের এত দুর্দান্ত প্রদর্শনী সেবারই প্রথম।

অন্য খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন