‘খেলোয়াড়েরা পরিকল্পনার কথা ভুলে নিজের মতো খেলে’

বাংলাদেশ দলের অনুশীলনে গোবিনাথনফাইল ছবি

ব্যাংককে এশিয়ান গেমসের বাছাই হকির ফাইনালে ওমানের কাছে হেরেছে বাংলাদেশ। অথচ বাংলাদেশের সামনে সুযোগ ছিল টানা ১১টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ জেতার। কিন্তু ১৫ মে বাংলাদেশকে ৬-২ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন উৎসব করে ওমান।

আগামীকাল ইন্দোনেশিয়ায় শুরু হচ্ছে এশিয়া কাপ হকি। এই টুর্নামেন্টে খেলতে নামার আগে ইন্দোনেশিয়ায় দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। যদিও প্রথম ম্যাচে ইন্দোনেশিয়াকে ২-১ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশ।

তবে শক্তিশালী ভারতের কাছে পরের ম্যাচে হেরেছে ৫-১ গোলে। ওই প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথমার্ধে ভারত মাত্র একটি গোল করতে পেরেছিল। কিন্তু পরের অর্ধে ৪ গোল খেয়েছে বাংলাদেশ।

তুলনামূলক কঠিন প্রতিপক্ষের সঙ্গে সামর্থ্যের সবটুকু দিয়ে লড়াই করলেও খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সে অসন্তষ্ট কোচ। খেলা শুরুর আগে প্রতিপক্ষের শক্তি-দুর্বলতা বিশ্লেষণ করে যে পরিকল্পনা করেন কোচ, টার্ফে নেমে সেসব ভুলে যান খেলোয়াড়েরা।

ইন্দোনেশিয়া থেকে মুঠোফোনে গোবিনাথন সেটাই বললেন, ‘এই দলের সমস্যা হচ্ছে আমি যে পরিকল্পনার কথা বলে দিই, টার্ফে নেমে কিছু খেলোয়াড় সেটা বাস্তবায়ন করতে পারে না। ওরা মাঠে নিজেদের মতো খেলে। ওরা ভুলে যায় আমার পরিকল্পনার কথা।’

অনুশীলনে হকি দল
ফাইল ছবি

এশিয়ার সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ হকি টুর্নামেন্টের আগে এসব নিয়ে ভালোভাবেই কাজ করেছেন কোচ, ‘আমি খেলোয়াড়দের এই সমস্যাগুলো চিহ্নিত করেছি। ঘরোয়া হকিতেও ওদের একই সমস্যা দেখেছি। দলের একজন ভুল করে। কিন্তু সেটার জন্য পুরো দলকে ভুগতে হয়। ভুলে গেলে চলবে না যে এটা একটা দলগত খেলা।’

আগামীকাল প্রথম দিনে বাংলাদেশ মুখোমুখি হবে শক্তিশালী দক্ষিণ কোরিয়ার। জাকার্তার জিবিকে হকি মাঠে বাংলাদেশ সময় বেলা একটায় শুরু হবে খেলা। বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে কোরিয়ার অবস্থান ১৬তম।

যেখানে তাদের চেয়ে ১৪ ধাপ পিছিয়ে ৩০তম স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। কোরিয়ার সঙ্গে সর্বশেষ চারবারের মুখোমুখিতে সব ম্যাচে হেরেছে বাংলাদেশ। ২০১৩ এশিয়া কাপে বাংলাদেশকে ৯-০ গোলে হারিয়েছিল কোরিয়া। ২০১৪ ও ২০১৮ সালের এশিয়ান গেমসের দুটি ম্যাচেই হারের ব্যবধান ছিল ৭-০ গোলের।

তবে গত বছর ডিসেম্বরে ঢাকায় হওয়া চ্যাম্পিয়নস ট্রফি হকিতে বাংলাদেশ যা একটু লড়াই করেছিল। মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে ওই ম্যাচে বাংলাদেশ হারে ৩-২ গোলে।
চ্যাম্পিয়নস ট্রফি হকির বর্তমান চ্যাম্পিয়ন কোরিয়ার সঙ্গে খেলার আগে গোবিনাথনের কণ্ঠে সতর্কতা, ‘এশিয়ান চ্যাম্পিয়নস ট্রফির সব শক্তিশালী দল এশিয়া কাপে খেলছে। এদের মধ্যে অন্যতম শক্তিশালী কোরিয়া। ওদের সঙ্গে খুব সতর্ক হয়ে খেলতে হবে।’

গত মার্চে বাংলাদেশ খেলেছে এএইচএফ কাপ হকি। এরপর ৬-১৫ মে এশিয়ান গেমস বাছাই হকি খেলেছে। টানা টুর্নামেন্ট খেলতে খেলতে ক্লান্ত খেলোয়াড়েরা। কিন্তু তারপরও এশিয়া কাপে ভালো হকি উপহার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি কোচের, ‘আমরা গত কয়েক মাস টানা খেলার মধ্যে আছি । এটা খুবই কঠিন কাজ।

গোলের পর খেলোয়াড়দের উচ্ছ্বাস
ফাইল ছবি

যদিও এখানে আমাদের কিছু করার নেই। এভাবে খেলতেই হবে। কোরিয়া, জাপান, মালয়েশিয়া একেবারে তরতাজা হয়ে খেলতে এসেছে। আমরা যদি সেভাবে আসতে পারতাম, তাহলে ভালো হতো। তবে এসব নিয়ে মোটেও ভাবছি না। আমরা মাঠের খেলায় নজর দিতে চাই। অবশ্যই এখানে ভালো হকি উপহার দিতে চাই।’

এশিয়ান গেমস বাছাই হকি ও এএইচএফ কাপ মিলিয়ে বাংলাদেশ টানা ১০ ম্যাচে জয় পেয়েছে। কিন্তু জিতলেও খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্স নিয়ে অসন্তুষ্ট কোচ। বিশেষ করে পেনাল্টি কর্নার থেকে গোল পাচ্ছে না বলে দুশ্চিন্তায় গোবিনাথন, ‘পেনাল্টি কর্নার একটা বড় সমস্যা আমাদের। আমরা এশিয়ান গেমসের বাছাইয়ে বেশি শর্ট কর্নার আদায় করতে পারিনি। এটা আমাদের ফরোয়ার্ডদের সমস্যা।’

১৯৮২ সালে শুরু হওয়ার পর থেকে এশিয়া কাপে কখনোই বাংলাদেশ সেরা চারে থাকতে পারেনি। ষষ্ঠ, সপ্তম বা অষ্টম হওয়াটাই যেন বাংলাদেশের নিয়তি। এবারও কোচ বাংলাদেশ নিয়ে কোনো আশার কথা শোনাতে পারলেন না, ‘আগে অন্য দলগুলোর প্রথম ম্যাচ দেখি। আমরা এখনো জানি না কোনো দেশের শক্তি ও দুর্বলতা কেমন। প্রথম ম্যাচ গেলে বুঝতে পারব কারা কেমন খেলছে। এরপরই বলা যাবে আমরা কততম হতে পারব এশিয়া কাপে।’