সার্বিয়ান তারকা নোভাক জোকোভিচ ও স্প্যানিশ তারকা রাফায়েল নাদাল
সার্বিয়ান তারকা নোভাক জোকোভিচ ও স্প্যানিশ তারকা রাফায়েল নাদালছবি: টুইটার

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনও রক্ষা পেল না করোনাভাইরাস থেকে। কাল মেলবোর্ন পার্কে এ গ্র্যান্ড স্লামের প্রস্তুতি ম্যাচগুলো বাতিল করা হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে খেলোয়াড়দের কোয়ারেন্টিনে রাখার জন্য বরাদ্দকৃত হোটেলগুলোর মধ্যে একটি হোটেলের এক কর্মী কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, স্টাফ, খেলোয়াড় ও অফিশিয়াল মিলিয়ে প্রায় ৬০০ জনকে আইসোলেশনে থাকার কথা বলা হয়েছে।

বছরের প্রথম এ গ্র্যান্ড স্লাম টুর্নামেন্ট শুরু হবে আগামী সোমবার থেকে। কোভিড-১৯ পরীক্ষায় নেগেটিভ ফল না আসা পর্যন্ত আইসোলেশনে থাকতে বলা হয়েছে তাঁদের।

বিজ্ঞাপন

এ টুর্নামেন্টের আয়োজকদের পক্ষ থেকে টুইটারে বলা হয়, ‘যত দ্রুত সম্ভব পরীক্ষা করাতে পারে, এমন সবার সঙ্গে কাজ করব আমরা। মেলবোর্ন পাকে বৃহস্পতিবার কোনো ম্যাচ হবে না। শুক্রবারের সূচি আজ পরে জানিয়ে দেওয়া হবে।’

খেলোয়াড়দের কোয়ারেন্টিনের জন্য তিন সপ্তাহ পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ান ওপেন। পরিবর্তিত এ সূচিতে করোনা হানা দেওয়ার কারণ গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলের এক কর্মী।

২৬ বছর বয়সী এ হোটেলকর্মীর শরীরে করোনার নমুনা মিলেছে এবং লন্ডনে নতুন ধরনের করোনাভাইরাস হতে পারে বলে জানিয়েছে বিবিসি। এ হোটেলকর্মী পেশায় নিরাপত্তারক্ষী। কাল করোনা পরীক্ষায় তিনি পজিটিভ হন।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে হাজারখানেক খেলোয়াড়, স্টাফ ও অফিশিয়ালের অনেকেই গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে ছিলেন। অস্ট্রেলিয়ায় পা রাখার পর এ নিয়ম পালন করছিলেন তাঁরা।

মেলবোর্নের স্বাস্থ্য বিভাগ এক বিবৃতিতে জানায়, ‘গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলে যেসব খেলোয়াড়, কর্মী ও স্টাফ ছিলেন, আমরা তাঁদের সবার সঙ্গে যোগাযোগ করছি। তাঁদের দ্রুত পরীক্ষা করা হবে এবং আইসোলেশনে রাখা হবে।’

ভিক্টোরিয়া রাজ্য প্রশাসনের প্রধান ড্যানিয়েল অ্যান্ড্রুজ সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘এ মুহূর্তে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ওপর সেভাবে প্রভাব পড়েনি।’

আজ সংবাদ সম্মেলনে অ্যান্ড্রুজ মেলবোর্নে কারও মধ্যে করোনার লক্ষণ দেখা দিলে দ্রুত পরীক্ষার আহ্বান জানান। গ্র্যান্ড হায়াতে থাকা খেলোয়াড়, স্টাফ ও অফিশিয়ালদের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলা বাকিদের জন্যও ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন
টেনিস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন