বিজ্ঞাপন
default-image

নাদাল কিছু দিন আগে বলেছিলেন টেনিসের 'বড়' তিন তারকা 'বুড়ো' হয়ে গেছেন। নাদালের এই দাবি মানেননি জোকভিচ। শনিবার রোম মাস্টার্সের সেমিফাইনাল জেতার পর জোকোভিচ বলেন নাদালের কথা মানেন না তিনি। কিন্তু এক দিন পর ফাইনালে এক বছরের বড় নাদালের কাছেই হেরে গেলেন ১৮ বারের গ্র্যান্ড স্লাম এককজয়ী জোকোভিচ।

দুই 'বুড়ো'র লড়াইয়ে জেতার পর ট্রফি হাতে ওঠানোর পর নাদাল বললেন এত দূর আসতে পারবেন ভাবেননি কখনো, 'অবিশ্বাস্য, এই ট্রফিটা ১০ম বারের মতো হাতে তুললাম। এতটা কল্পনাতেও ছিল না। মনে আছে ২০০৫ সালে যখন প্রথম রোমে ট্রফি জিতলাম (গিয়ের্মো) কোরেয়াকে হারাতে পাঁচ ঘণ্টা লেগেছিল।'

রোম মাস্টার্সের সর্বশেষ ১৭ আসরের ১৫টিতেই চ্যাম্পিয়নের নাম হয় নাদাল, নয় জোকোভিচ। শিরোপা জেতায় ১০–৫ ব্যবধানে এগিয়ে থাকা নাদাল রোমের ফাইনালেও এগিয়ে জোকোভিচের বিপক্ষে। দুজনের ছয়টি ফাইনালের চারটিতেই জয়ীর নাম রাফায়েল নাদাল।

এবার জোকোভিচকে হারানোর পর নাদাল জানালেন রোমে সাফল্য পেতে কতটা মরিয়া ছিলেন তিনি। গতবার আর্জেন্টাইন দিয়েগো সোয়ার্টজমানের কাছে কোয়ার্টার ফাইনালে হেরেই বিদায় নিয়েছিলেন নাদাল। এবার প্রায়শ্চিত্ত করলেন সেটিরই, 'আমি এখানে শিরোপা জিততে মুখিয়ে ছিলাম। আমার ক্যারিয়ারের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শিরোপা তো এটিই। আমি মন্টে কার্লো, বার্সেলোনা ও রোলাঁ গারোর (ফ্রেঞ্চ ওপেন) পর এখানেও সংখ্যাটা দুই অঙ্কে নিতে চেয়েছি।'

ফাইনালে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে প্রথম সেটটা জেতেন নাদাল। দ্বিতীয় সেটে অবশ্য একতরফা খেলে জিতে যান জোকোভিচ। তৃতীয় সেটে আর পেরে ওঠেননি জোকোভিচ। ৩৩ বছর বয়সী তারকা যেন হেরে গেলেন ক্লান্তির কাছেই। শনিবার প্রায় পাঁচ ঘণ্টা কোর্ট ছিলেন জোকোভিচ। বৃষ্টির কারণে পিছিয়ে যাওয়া কোয়ার্টার ফাইনালের পর সেমিফাইনালটাও সেদিন খেলতে হয়েছে 'জোকার' জোকোভিচকে।

টেনিস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন