এটিপির এই টুর্নামেন্ট রেকর্ড ১০ বারের মতো জিতেছেন ফেদেরার। আগামী ৮ আগস্ট ৪০ বছর বয়সে পা রাখতে যাওয়া সুইস তারকা এবার সেখানে কোয়ার্টার ফাইনালেও উঠতে পারলেন না! দ্বিতীয় রাউন্ডে তিনি হেরেছেন কানাডার ফেলিক্স অগার অ্যালিয়াসমের কাছে (৪-৬, ৬-৩, ৬-২)।

এটিপি টুর্নামেন্টে এই প্রথমবারের মতো ২০ বারের গ্র্যান্ডস্লাম শিরোপাধারীর মুখোমুখি হয়েছিলেন ফেলিক্স। জয়ের পর ফেলিক্সের যেন বিশ্বাস হচ্ছিল না! ‘এটা অবিশ্বাস্য। এমন কিছুর প্রত্যাশা করিনি। হ্যাঁ, জিততে চেয়েছিলাম, রজার ফেদেরার আমার আদর্শ, তার সঙ্গে খেলতে পারাই তো সম্মানের ব্যাপার।’

২০ বছর বয়সী ফেলিক্স বয়সে ফেদেরারের অর্ধেক। সঠিক হিসাবে, দুজনের বয়সে ১৯ বছরের ব্যবধান। মজার ব্যাপার হচ্ছে ফেদেরারের মতো তাঁর জন্মদিনও ৮ আগস্ট। ২০১৭ সালে টেনিসের পেশাদার জগতে পা রাখা ফেলিক্স ভেবেছিলেন, তিনি আসার আগেই ফেদেরার হয়তো অবসর নিয়ে নেবেন।

শেষ পর্যন্ত নিজের আদর্শের মুখোমুখি হয়ে যখন জয়ের সুবাস পাচ্ছিলেন, সে সময়ে তাঁর উপলব্ধি, ‘জয় দেখার সময় একটু চাপে ভুগেছি। তবে আমি খুব ভালো খেলেছি।’

উইম্বলডন শুরুর আগে সাধারণত হ্যালে ওপেন দিয়ে প্রস্তুতি সারেন খেলোয়াড়েরা। করোনাভাইরাস মহামারির কারণে গত বছর এ টুর্নামেন্ট হয়নি, সে ক্ষেত্রে ফেদেরার ছিলেন এবারের ‘বর্তমান চ্যাম্পিয়ন’।

উইম্বলডনের প্রস্তুতি নিতে ফেদেরার বলেছিলেন, ঘাসের কোর্টে তাঁর অন্তত ১০টি ম্যাচ খেলা দরকার। ফেলিক্সের বিপক্ষে প্রথম সেট জয়ের পর আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেননি তিনি। এই প্রথমবারের মতো হ্যালে ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে ব্যর্থ হলেন ফেদেরার। শেষ আটে ফেলিক্সের প্রতিদ্বন্দ্বী মার্কিন যুক্তরাস্ট্রের মার্কোস জিরোন।