ফাইনালে ওঠা নিশ্চিত হওয়ার পর নাদালের উল্লাস।
ফাইনালে ওঠা নিশ্চিত হওয়ার পর নাদালের উল্লাস। ছবি: রয়টার্স
করোনার কারণে এবার ফ্রেঞ্চ ওপেনে অনেক বদল ঘটেছে। করোনার বাইরেও একটা বদল আছে, বদলেছে বল। কিন্তু একটা দৃশ্য বদলাল না—লাল মাটির কোর্টটিতে একটা ম্যাচ জয়ের পর রাফায়েল নাদালের উচ্ছ্বাস।

ফ্রেঞ্চ ওপেন ইউরোপের গ্রীষ্ম থেকে শীতকালে যেতে পারে। জুন থেকে বদলে অক্টোবরে গেছে। ফ্রেঞ্চ ওপেনের বল বদলেছে। দর্শকের সংখ্যায় সীমা টেনে দিয়েছে করোনাভাইরাস, সামাজিক দূরত্ব ঠিক রাখতে হবে যে!
এত সব বদল, কিন্তু ফ্রেঞ্চ ওপেনে একটা দৃশ্য বদলাল না। সম্ভবত সেটি বদলানো সম্ভবও নয়। কোন দৃশ্য? লাল মাটির কোর্টটিতে একটা ম্যাচ জয়ের পর রাফায়েল নাদালের উচ্ছ্বাস! রোলাঁ গারোতে আজ আর্জেন্টিনার দিয়েগো শোয়ার্জমানকে ৬-৩, ৬-৩, ৭-৬ (৭-০) গেমে হারিয়ে আরেকটি ফ্রেঞ্চ ওপেনের ফাইনালে উঠে গেছেন স্প্যানিশ টেনিস কিংবদন্তি।
তাঁর ১৩তম ফ্রেঞ্চ ওপেন ফাইনাল এটি। এর আগের ১২ ফাইনালের ১২টিই জিতেছেন। ফ্রেঞ্চ ওপেনের রেকর্ড শিরোপা যে তাঁর, সেটি নিশ্চয়ই বলে দিতে হয় না! রেকর্ডটাকে আরও বাড়িয়ে নেওয়ার পথে রোববার এবারের ফাইনালে তাঁর প্রতিপক্ষ হতে পারেন সার্বিয়ান নোভাক জোকোভিচ কিংবা গ্রিক স্তেফানোস সিতসিপাস।

বিজ্ঞাপন

তবে না থেকেও আরেকজন সম্ভবত রোববারের ফাইনালে থাকবেন নাদালের অদৃশ্য প্রতিপক্ষ হয়ে। তাঁর বন্ধু—সুইস টেনিস কিংবদন্তি রজার ফেদেরার! ২০টি গ্র্যান্ড স্লাম জিতে সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্লামের রেকর্ডের চূড়ায় ফেদেরারকে ছুঁতে যে আর একটি গ্র্যান্ড স্লামই লাগবে নাদালের। আর একটি জয় লাগবে!

default-image

ফাইনাল জিতলে ছোট্ট আরেকটি মাইলফলকও ছুঁয়ে ফেলবেন নাদাল। এ নিয়ে রোলাঁ গারোতে ১০১টি ম্যাচ খেলেছেন নাদাল, হেরেছেন মাত্র দুটিতে। ফাইনালে জিতলে রোলাঁ গারোতে জয়ের সেঞ্চুরিও হয়ে যাবে তাঁর।
ফাইনালে নিশ্চিত প্রথম দুই সেটের পারফরম্যান্সই চাইবেন নাদাল। সেই দুই সেটে শোয়ার্জমানকে দাঁড়াতেই দেননি ৩৪ বছর বয়সী স্প্যানিশ তারকা! ততক্ষণ পর্যন্ত ফার্স্ট সার্ভের ৮০ শতাংশই জিতেছেন, শোয়ার্জমানের হার ছিল ৬৬ শতাংশ। নাদাল উইনার মেরেছেন ৮টি, এখানে অবশ্য শোয়ার্জমান এগিয়ে ছিলেন—উইনার মেরেছেন ৯টি। কিন্তু শোয়ার্জমানের ১২টি আনফোর্সড এররের বিপরীতে নাদালের ছিল মাত্র ৭টি। রিটার্নে পয়েন্ট জেতার ক্ষেত্রেও শোয়ার্জমানের (২০ শতাংশ) চেয়ে অনেক এগিয়ে ছিলেন নাদাল (৪১%)।

কিন্তু প্রথম দুই সেট ৬-৩, ৬-৩ গেমে জেতার পর নাদালের কিছুটা ছন্দপতন হলো, শোয়ার্জমানও যেন ফিরে পেলেন নিজেকে কিছুটা। বেজলাইন ছেড়ে এগিয়ে এসে নেট প্লে-তে মনোযোগ দিতে দেখা যায় আর্জেন্টাইন তারকাকে। চলে সার্ভিস ব্রেক করার খেলা।

default-image

প্রথম সাত গেমের মধ্যেই নাদাল দুবার ব্রেক করেন শোয়ার্জমানের সার্ভিস, শোয়ার্জমানও একই অনুভূতি ফেরত দেন নাদালকে। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৬ গেম শেষে দুজনেরই সমতা, ৬-৬। সেট গড়ায় টাইব্রেকারে। কিন্তু ফাইনালের ঘ্রাণ পেয়ে যাওয়া নাদালের অভিজ্ঞতা আর কৌশলের কাছে সেখানে আর পাত্তাই পাননি শোয়ার্জমান। ৭-০ গেমে টাইব্রেকার জিতে যান নাদাল।
ফাইনালে বিপক্ষে কোন নাদালকে দেখা যাবে, তারওপরই হয়তো নির্ভর করছে সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ড স্লামের রেকর্ডে ফেদেরারের একারই ভাগ থাকবে কি না!

বিজ্ঞাপন
টেনিস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন