বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

হয়তো গিয়েছিল। হয়তো কিছুটা নড়বড়ে করে দিয়েছিল জোকোভিচকে। হয়তো কিছুটা মনোযোগ সরে গিয়েছিল সার্বিয়ান তারকার। সে কারণেই কি না, প্রথম সেটটা হেসেখেলেই জিতেছিলেন জভেরেভ, ৬-৪ ব্যবধানে। আবার অনেকে বলতে পারেন, এটাই তো জোকোভিচের ‘স্টাইল!’ শুরুতে ধীরে খেলা জোকোভিচের আসল রূপ তো দেখা যায় ম্যাচের শেষ দিকে এসে!


কারণ যা-ই হোক না কেন, প্রথম সেট জেতা জভেরেভ শেষমেশ জোকোভিচের অদম্য মানসিকতার সামনে টিকতে পারেননি, পারেননি অলিম্পিক-সাফল্যের পুনরাবৃত্তি করতে। ৩ ঘণ্টা ৩৩ মিনিটের মহাকাব্যিক লড়াইয়ের পর ৪-৬, ৬-২, ৬-৪, ৪-৬, ৬-২ গেমে সেমিফাইনাল জিতে জোকোভিচ বুঝিয়ে দিয়েছেন, রেকর্ডের হিসাবে আনুষ্ঠানিকভাবে পুরুষ এককের সেরা টেনিস তারকা হতে তিনি পুরোপুরি প্রস্তুত।

default-image

রজার ফেদেরার, রাফায়েল নাদাল, নোভাক জোকোভিচ—টেনিসের ত্রিরত্ন। ২০টি করে গ্র্যান্ড স্লাম নিয়ে ছেলেদের এককের গ্র্যান্ড স্লামের রেকর্ডে তিনজনই আছেন যৌথভাবে শীর্ষে। জভেরেভকে হারিয়ে ইউএস ওপেনের ফাইনালে ওঠা জোকোভিচ এই তালিকায় এককভাবে শীর্ষে ওঠার দুর্দান্ত সুযোগ পাচ্ছেন আগামী সোমবার।

ফাইনালে রাশিয়ার দানিল মেদভেদেভকে হারাতে পারলেই এককভাবে ২১ গ্র্যান্ড স্লাম জিতে ফেদেরার-নাদালকে ছাড়িয়ে যাবেন, উঠে যাবেন রেকর্ডের শিখরে। সেমিতে কানাডার ফেলিক্স অগুয়ের-আলিয়াসিমকে ৬-৪, ৭-৫, ৬-২ গেমে হারিয়েছেন ২০১৯ ইউএস ওপেনের ফাইনাল খেলা মেদভেদেভ।

default-image

ফাইনালে মেদভেদেভকে হারাতে পারলে শুধু গ্র্যান্ড স্লামের রেকর্ডের শীর্ষেই উঠবেন না জোকোভিচ, এক পঞ্জিকাবর্ষে সব কটি গ্র্যান্ড স্লাম জেতার কীর্তিও গড়বেন এই সার্বিয়ান, যে কীর্তি এর আগে ১৯৬৯ সালে করে দেখিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ান তারকা রড লেভার।

ফাইনালে যে যেকোনো মূল্যে জিততে চান, সেটা বোঝা গেছে জোকোভিচের কথায়, ‘আর এক ম্যাচ বাকি আছে। আমি আমার সামর্থ্যের সবটুকু দিয়ে, হৃদয় নিংড়ে ম্যাচটা খেলতে চাই। এটাকে আমার জীবনের শেষ ম্যাচ ভেবেই খেলব।’

জোকোভিচের কথায় নিজের তৃতীয় গ্র্যান্ড স্লাম ফাইনাল খেলতে যাওয়া মেদভেদেভের বুকে কাঁপন ধরাই স্বাভাবিক। এর আগে ২০১৯ ইউএস ওপেনের ফাইনালে নাদাল আর ২০২১ অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনালে এই জোকোভিচের কাছেই হেরেছিলেন এই রাশিয়ান। তৃতীয়বারে সফল হতে চাইলে অবিশ্বাস্য কিছুই করে দেখাতে হবে মেদভেদেভকে।

টেনিস থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন