default-image

প্রথমবারের মতো গত বছর গ্র্যান্ড স্লাম জিতেছেন ক্লে কোর্টে। আগের তিনটি গ্র্যান্ড স্লামেও টানা সাফল্য তাঁর। কিন্তু রোলাঁ গারোয় সাফল্যের পর কী যে হলো! উইম্বলডন, ইউএস ওপেন ও অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জিততে পারলেন না। র্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ থেকে নেমে গেলেন দুইয়ে! এর চেয়েও বড় কথা, কোর্টে চিরচেনা ছন্দটাই হারিয়ে ফেললেন।
এ অবস্থার একটা বদল চান জোকোভিচ। কোর্টে শুরু করতে চান নতুন করে। এবং সেটি করতেই ছাঁটাই করেছেন পুরো কোচিং দলকে। তাঁর পথচলায় বেশ লম্বা সময়ই সঙ্গী হয়েছিলেন কোচ মারিয়ান ভাইদা। একটা পরিবর্তন আনতে তাঁর পাশাপাশি বিদায় করে দিয়েছেন ফিটনেস কোচ গেভার্ড ফিল গ্রিশ এবং ফিজিওথেরাপিস্ট মিলিয়ান আমানোভিচকে। নতুন কোচ নিয়োগ করে সার্বিয়ান তারকা শুরু করতে চান নতুন করে। কে হবেন তাঁর নতুন কোচ?
নতুন কেন, পুরোনো কোচ বরিস বেকারকে ফিরিয়ে আনলেই হয়? অনেক জোকোভিচ-ভক্তের মনের কথাটাই বলে দিয়েছেন সাবেক যুগোস্লাভিয়াকে ডেভিস কাপে নেতৃত্ব দেওয়া রাদমিলো আর্মেনুলিচ। সাম্প্রতিক সময়ে কোর্টে জোকোভিচের পারফরম্যান্স তাঁর নামের সঙ্গে যায় না! তাই কোচ হিসেবে জার্মান টেনিস গ্রেট বরিস বেকারকেই ফিরিয়ে আনার পরামর্শ দিচ্ছেন আর্মেনুলিচ, ‘আমার তো মনে হয়, বেকারকে ফিরিয়ে আনাটাই হবে সঠিক পদক্ষেপ। এই জার্মান যখন তার কোচিং দলে ছিলেন, জীবনের সেরা টেনিসই খেলেছে সে।’
ক্যারিয়ারে জোকোভিচের জেতা ১২টি গ্র্যান্ড স্লামের ছয়টিই এসেছে বেকারের সঙ্গে জুটি বাঁধার পর। তাঁর সঙ্গে গত বছর ছাড়াছাড়ি হয়ে যাওয়ার পর থেকেই তাঁর ক্যারিয়ারের গ্রাফটা নিম্নমুখী! গত ফ্রেঞ্চ ওপেন জয়ের পর কোনো গ্ল্যান্ড স্লাম তো নয়ই, শিরোপাই জিতেছেন মাত্র দুটি। সর্বশেষ খেলা তিনটি টুর্নামেন্টে তাঁর পারফরম্যান্স বড্ড বিবর্ণ। ফেব্রুয়ারি ও মার্চে মেক্সিকান ওপেনের তৃতীয় ও চতুর্থ রাউন্ডে হেরেছেন অস্ট্রেলিয়ার নিক কিরিওসের কাছে। আর এপ্রিলে মন্টে কার্লো মাস্টার্সের শেষ আটে হেরে যান বেলজিয়ামের ডেভিড গফিনের কাছে। এ অবস্থায় আর্মেনুলিচের মতো তাঁর ভক্তরাও চাইবেন ফিরিয়ে আনা হোক বেকারকে। এখন জোকোভিচ চাইলেই হয়! এএফপি, রয়টার্স।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন