অসমাপ্ত উপন্যাসের ঘটনা বাস্তব জীবনে

‘অ্যালান ওয়েক’ গেম/স্ক্রিনশট

অ্যালান ওয়েকের জন্ম ১৯৭৮ সালে। কিশোর বয়সেই স্টিফেন কিং নামের এক লেখকের ভক্ত হয়ে ওঠে অ্যালান, যা তাকে ধীরে ধীরে একজন লেখক হতে অনুপ্রাণিত করে। এ জন্য পড়ালেখার পাট চুকিয়ে লেখক হওয়ার জন্য বিভিন্ন গল্পের খোঁজ করতে থাকে অ্যালান। কিন্তু কিছুতেই মন মতো গল্পের খোঁজ না পেয়ে সিদ্ধান্ত নেয় রাতে প্রহরীর কাজ করার। উদ্দেশ্য একটাই, গল্পের সন্ধান করা। এভাবে ধীরে ধীরে আশপাশে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন ঘটনা অবলম্বনে গল্প লিখে লেখক হিসেবে পরিচিতি পায় সে।

দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশেও তার নাম ছড়িয়ে পড়ে। এরপর অ্যালিস নামের এক আলোকচিত্র শিল্পীকে বিয়ে করে নিউইয়র্কের একটি অ্যাপার্টমেন্টে বসবাস করতে থাকে অ্যালান।

ভালোই চলছিল অ্যালান দম্পতির জীবন। কিন্তু অ্যালেক্স কেসি সিরিজের শেষ বই, ‘দ্য সাডেন স্টপ’ প্রকাশের পরপরই অ্যালান হঠাৎ করে মানসিক বিষণ্নতায় ভুগতে থাকে। বেশ কয়েক বছরের জন্য লেখালেখি বন্ধ হয়ে যায় তার। চিকিৎসকের পরামর্শে অ্যালিস অ্যালানকে নিয়ে ভ্রমণের উদ্দেশে ছোট পাহাড়ি এলাকায় বেড়াতে যায়।

সেখানে অ্যালান একটি দুঃস্বপ্ন দেখে, যেখানে একটি রহস্যময় কালো ছায়া যে তাকে হত্যা করার চেষ্টা করছে।

ভ্রমণে যাওয়ার পর নিজেদের কেবিনে হঠাৎ করেই অ্যালিস চিৎকার দিয়ে ওঠে।

অ্যালান কেবিনে এসে দেখে অ্যালিসকে একটি রহস্যময় অন্ধকার শক্তি লেকের পানির দিকে টেনে নিয়ে যাচ্ছে। অ্যালান লেকের ডুব দিয়েও স্ত্রীকে উদ্ধার করতে ব্যর্থ হয়।

জ্ঞান ফেরার পর অ্যালান নিজেকে আহত অবস্থায় একটি গাড়িতে খুঁজে পায়। এরপর অ্যালান পুলিশকে স্ত্রীর নিখোঁজ হওয়ার কথা বললেও তারা সে কথা বিশ্বাস করে না।

একপর্যায়ে অ্যালান বুঝতে পারে তার অসমাপ্ত সিরিজের গল্পের সঙ্গে নিজের জীবনের বাস্তবতা মিলে যাচ্ছে। এমনই এক লেখকের জীবনের ঘটনা নিয়ে গড়ে উঠেছে ‘অ্যালান ওয়েক’ নামের গেমটি। থ্রিলার গল্প অবলম্বনে তৈরি গেমটিতে অ্যালানের চরিত্রে নিজেকে খুঁজে পাওয়া যাবে। সমাধান করতে হবে অ্যালিসের নিখোঁজ হওয়ার রহস্য। অসমাপ্ত সিরিজের গল্পের সঙ্গে বাস্তব জীবনের বিভিন্ন ঘটনার মিলও খুঁজে বের করতে হবে।

রেমেডি এন্টারটেইনমেন্টের তৈরি গেমটি উইন্ডোজের পাশাপাশি প্লেস্টেশন ৪, প্লেস্টেশন ৫, এক্সবক্স ওয়ান, এক্সবক্স সিরিজ এক্স/এস ও নিন্টেন্ডো সুইচে খেলা যাবে।

উইন্ডোজ খেলতে যা লাগবে

অপারেটিং সিস্টেম: উইন্ডোজ এক্সপি অথবা পরবর্তী সংস্করণ।
প্রসেসর: ২ গিগাহার্জ গতির ইন্টেল অথবা ২.৮ গিগাহার্জ গতির এএমডি প্রসেসর।
মেমরি: ২ গিগাবাইট র‍্যাম।
গ্রাফিক্স: ডাইরেক্টএক্স ১০ সুবিধার ৫১২ মেগাবাইট র‍্যাম।
খালি জায়গা: ৮ গিগাবাইট।