মঙ্গলবার রাজধানীর একটি হোটেলে এই উদ্যোগের উদ্বোধন করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। এ সময় মেটলাইফ ফাউন্ডেশনের সহকারী ভাইস প্রেসিডেন্ট কৃষ্ণ থ্যাকার, মেটলাইফ বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আলা আহমেদ, সুইসকন্ট্যাক্টের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক মনীশ পান্ডে এবং সুইসকন্ট্যাক্ট বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর মুজিবুল হাসান উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, প্রচলিত ব্যাংকিং ব্যবস্থায় এখনো দেশের মোট জনগোষ্ঠীর ৭১ শতাংশ মানুষই আর্থিক অন্তর্ভুক্তির বাইরে রয়েছে। মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস (এমএফএস) সেবার বাইরে রয়েছে ৩২ শতাংশ মানুষ। করোনা মহামারির পরে পোশাকশ্রমিকদের মধ্যে এমএফএসের ব্যবহার ৮০ শতাংশ থেকে কমে হয়েছে ৬২ শতাংশ। ডিজিটাল সেবা কাজে লাগিয়ে এই অবস্থার উন্নয়নে একসঙ্গে কাজ করতে চায় বিভিন্ন ব্যাংক-বিমা এবং এমএফএস প্রতিষ্ঠান।

অনুষ্ঠানে ‘বাংলাদেশে আর্থিক অন্তর্ভুক্তির অগ্রগতি: তৈরি পোশাককর্মীদের সুযোগ তৈরি’ শীর্ষক প্যানেল আলোচনাও অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনায় অংশ নেন ব্যাংক এশিয়ার উপব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. জিয়াউল এইচ মোল্লা, বিকাশের চিফ এক্সটার্নাল অ্যান্ড করপোরেট অ্যাফেয়ার্স কর্মকর্তা মেজর জেনারেল (অব.) শেখ মো. মনিরুল ইসলাম এবং নগদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রাহেল আহমেদ।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন