ইরাক থেকে আরও সেনা প্রত্যাহার করছে যুক্তরাষ্ট্র

বিজ্ঞাপন
default-image

ইরাক থেকে আরও সেনা প্রত্যাহার করছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পাঁচ হাজার ২০০ মার্কিন সেনা রয়েছেন। এর মধ্যে চলতি সেপ্টেম্বরের শেষ দিকে দুই হাজার ২০০ সেনা প্রত্যাহার করা হবে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, মধ্যপ্রাচ্যের কমান্ডার জেনারেল কেনেথ ম্যাকেঞ্জি এ তথ্য জানিয়েছেন।

কমান্ডার ম্যাকেঞ্জির ভাষ্য, ইরাকে থেকে যাওয়া বাকি মার্কিন সেনারা আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) মূলোৎপাটনে সে দেশের নিরাপত্তা বাহিনীকে পরামর্শ ও সহায়তা দেবে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষণা দেন, যত দ্রুত সম্ভব তিনি ইরাক থেকে তাঁর দেশের সেনাদের প্রত্যাহার করবেন। এর আগেও তিনি এই ঘোষণা দিয়েছিলেন। ২০১৬ সালে তাঁর নির্বাচনী ইশতেহারেও একই ধরনের ঘোষণা ছিল। ট্রাম্পের পূর্বসূরি বারাক ওবামা প্রথমবারের মতো ইরাক থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করেছিলেন।

গত জানুয়ারিতে ইরাকে ড্রোন হামলায় নিহত হন ইরানি জেনারেল কাসেম সোলাইমানি। এর পর থেকে মার্কিন সেনাদের উপস্থিতি ইরাকের জন্য ভূরাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে বাড়তি মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সাদ্দাম সরকারের বিরুদ্ধে গণবিধ্বংসী অস্ত্র মজুতের অভিযোগ তুলে ২০০৩ সাল থেকে ইরাকে হামলা চালায় মার্কিন বাহিনী। দেশটির তৎকালীন প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনকে উৎখাত করে তাঁকে ফাঁসিতে ঝোলায়। তখন থেকেই দেশটিতে অবস্থান করেছে মার্কিন সেনারা।

সাম্প্রতিক সময়ে ইরাকে যান মার্কিন বাহিনীর মধ্যপ্রাচ্যের কমান্ডার কেনেথ ম্যাকেঞ্জি। তখন মার্কিন সেনারা তাঁকে জানান, ইরাকি বাহিনী মার্কিন বাহিনীর সহায়তা ছাড়াই এখন আইএস মোকাবিলায় সক্ষম। শুধু ইরাক নয় আফগানিস্তান ও জার্মান থেকেও যুক্তরাষ্ট্র তাদের সেনাদের প্রত্যাহার প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন