default-image

এবার সাগরে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে চীনের বিরোধ লেগেছে। দক্ষিণ চীন সাগরে বেইজিংয়ের তৎপরতার তীব্র বিরোধিতা করছে অস্ট্রেলিয়া।

দক্ষিণ চীন সাগরের জলসীমান্তের একটি দ্বীপকে চীন বেআইনিভাবে দখল করে রেখেছে বলে জাতিসংঘে দাবি তুলেছে অস্ট্রেলিয়া। এ ব্যাপারে জাতিসংঘের কাছে সরকারি নথি পাঠিয়েছে অস্ট্রেলিয়া সরকার।

বিতর্কিত দ্বীপটির চীনা দাবি প্রত্যাখ্যান করেছে জাতিসংঘে অস্ট্রেলিয়ার স্থায়ী মিশন। চীনের দাবিকে আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে ‘অসংগতিপূর্ণ’ বলে অভিহিত করেছে অস্ট্রেলিয়া।

অস্ট্রেলিয়া বলছে, সমুদ্র আইন সম্পর্কিত ১৯৮২ সালের জাতিসংঘ কনভেনশনের সঙ্গে ‘অসংগতিপূর্ণ’ যেকোনো চীনা দাবি অস্ট্রেলিয়ার সরকার প্রত্যাখ্যান করে।

চীনের করা দাবির আইনগত কোনো ভিত্তি নেই বলেও উল্লেখ করে অস্ট্রেলিয়া।

গত সপ্তাহে দক্ষিণ চীন সাগরে অস্ট্রেলিয়ার যুদ্ধজাহাজের মুখোমুখি হয় চীনা নৌবাহিনী। এ সময় অস্ট্রেলীয় যুদ্ধজাহাজকে বিতর্কিত দ্বীপটির পাশ দিয়ে যেতে বাধা দেয় চীনা নৌবাহিনী। অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র-জাপানের একটি যৌথ নৌ–মহড়া চলাকালে এই ঘটনা ঘটে।

অস্ট্রেলিয়ার প্রতিরক্ষা বাহিনী জানিয়েছে, তারা বিতর্কিত দ্বীপটির ১২ নটিক্যাল মাইলের মধ্যে প্রবেশ করেনি। যদিও অপরিকল্পিত এই মহড়ায় বিদেশি যুদ্ধজাহাজের সঙ্গে মুখোমুখি হওয়ার বিষয়টি নিরাপদ ও পেশাদার উপায়ে সামলে নেওয়া হয়েছিল।

জলসীমান্তে অস্ট্রেলিয়ার দ্বিমত পোষণ করা নিয়ে চীনের শিগগিরই আনুষ্ঠানিক মন্তব্য জানানোর কথা রয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0