এবার ১৪০০ অভিবাসী উদ্ধার

বিজ্ঞাপন
default-image

ইন্দোনেশিয়া ও মালয়েশিয়ার সমুদ্র উপকূলে চারটি নৌযান থেকে আজ সোমবার প্রায় এক হাজার ৪০০ অভিবাসীকে উদ্ধার করা হয়েছে। 
কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে জানানো হয়, এই অভিবাসীরা বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের। উপকূলে আরও অভিবাসী আসতে পারেন বলে ধারণা করছে কর্তৃপক্ষ।
গতকাল রোববার ইন্দোনেশিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় আচেহ প্রদেশের সমুদ্র উপকূলে এক নৌযান থেকে প্রায় ৬০০ জন বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গা অভিবাসীকে উদ্ধার করা হয়। এর পরদিনই বিপুলসংখ্যক অভিবাসী উদ্ধারের ঘটনা ঘটল।
আজ যে চারটি নৌযান থেকে সহস্রাধিক অভিবাসী উদ্ধার হয়েছেন, সেগুলো পরিত্যক্ত ছিল বলে কর্মকর্তাদের ভাষ্য।
এএফপির প্রতিবেদনে জানানো হয়, মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ার সমুদ্র উপকূল থেকে আজ পৃথকভাবে এই এক হাজার ৪০০ অভিবাসী উদ্ধার হয়েছেন।
পুলিশের ভাষ্য, মিয়ানমার ও বাংলাদেশের এক হাজারের বেশি অভিবাসী মালয়েশিয়ার উপকূলে আসেন। মানবপাচারকারীরা এই অভিবাসীদের পর্যটন দ্বীপ লাংকাবির উপকূলের অগভীর জলে ফেলে যান।
লাংকাবির উপপুলিশ প্রধান জামিল আহমেদ বলেন, ‘আমাদের ধারণা, তিনটি নৌযানে এক হাজার ১৮ জন অভিবাসী ছিলেন।’
অভিবাসীদের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে উল্লেখ করেন লাংকাবি পুলিশের এই কর্মকর্তা।

default-image


ইন্দোনেশিয়ায় উদ্ধার হওয়া অভিবাসীদের সম্পর্কে আচেহর প্রাদেশিক উদ্ধার ও অনুসন্ধান বিভাগের প্রধান বুদিওয়ান বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, আজ খুব ভোরে উত্তর আচেহর উপকূলে অভিবাসীবাহী একটি ভাসমান নৌযান আবিষ্কার করে ইন্দোনেশিয়ার অনুসন্ধান ও উদ্ধার দল। নৌযানটিতে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের নারী, পুরুষ ও শিশু মিলিয়ে ৪০০ জন অভিবাসী ছিলেন।
উপকূলে আরও অভিবাসী আসতে পারেন বলে ধারণা কর্তৃপক্ষের। এ জন্য ইন্দোনেশিয়ার দূরবর্তী পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশের উপকূলে টহলে সহায়তার জন্য মৎস্যজীবীদের নিয়োগ করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে আচেহর প্রাদেশিক উদ্ধার ও অনুসন্ধান বিভাগের প্রধান বুদিওয়ান বলেন, ‘সংকেত পাওয়ামাত্র তাঁদের (অভিবাসী) উদ্ধার করতে আমরা তৎপর ও প্রস্তুত রয়েছি।’
গতকাল ইন্দোনেশিয়ার সমুদ্র উপকূলে উদ্ধার হওয়া কয়েক শ অভিবাসী সম্পর্কে বলা হচ্ছে, মুক্তিপণ আদায় শেষে থাইল্যান্ডের গভীর জঙ্গলে পাচারকারীদের কবলে থাকা বন্দিশিবির থেকে তাঁদের ইন্দোনেশিয়ার দিকে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। একটি গণমাধ্যমে ওই অভিবাসীদের রোহিঙ্গা বলে উল্লেখ করা হয়।
এদিকে মালয়েশিয়ার মালাক্কা প্রণালিতে সাত-আট হাজার বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গা অভিবাসী আটকে রয়েছেন বলে জানিয়েছে একাধিক বার্তা সংস্থা।

default-image
বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন