default-image

করোনার সংক্রমণ পুরুষের শুক্রাণুর মান কমিয়ে দিতে পারে, এমনকি প্রজনন ক্ষমতাও কমিয়ে দিতে পারে। পরীক্ষামূলক প্রমাণাদির ওপর ভিত্তি করে নতুন এক গবেষণায় এ তথ্য পাওয়া গেছে। তবে  বিশেষজ্ঞরা এই গবেষণা সম্পর্কে বলেন, পুরুষের প্রজনন ক্ষমতা নষ্ট করার ক্ষমতা এই ভাইরাসের আদৌ আছে কি না, তা প্রমাণিত হয়নি।

রিপ্রোডাকশন সাময়িকীতে শুক্রবার প্রকাশিত প্রতিবেদনে গবেষকেরা বলেন, করোনার সংক্রমণের কারণে পুরুষের প্রজননতন্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।
জার্মানির জাস্টাস-লাইবিগ-ইউনিভার্সিটির বেহজাদ হাজিজাহেদ মালেকি এবং বখতিয়ার টারটিবিয়ান গবেষণা করেন, পুরুষের প্রজননতন্ত্রে এই ভাইরাসের নেতিবাচক কোনো প্রভাবের ইঙ্গিত পাওয়া যায় কি না। কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত এমন ৮৪ জন পুরুষের ওপর ১০ দিন বিরতি দিয়ে ৬০ দিন ধরে এ গবেষণা চালানো হয়। তাদের কাছে থেকে পাওয়া গবেষণা তথ্য সুস্থ ১০৫ জন পুরুষের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে।

গবেষণার প্রথম দিকে দেখা গেছে করোনাভাইরাসে সংক্রমণের কারণে প্রজনন অঙ্গকে সংক্রমিত করতে পারে, শুক্রাণুর কোষ বৃদ্ধিকে দুর্বল করে দিতে পারে এমনকি প্রজনন হরমোনে ব্যাঘাত ঘটাতে পারে। কিন্তু পুরুষের প্রজনন ক্ষমতায় এর কি প্রভাব তা এখনো পরিষ্কার নয়।

যুক্তরাজ্যের কেয়ার ফার্টালিটির এমব্রায়োলজির প্রধান অ্যালিসন ক্যাম্পবেল লিখেছেন, ‘পুরুষদের অযথা ভয় পাওয়ার দরকার নেই।’ লন্ডনভিত্তিক সায়েন্স মিডিয়া সেন্টারকে তিনি বলেন, এখনই কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত ব্যক্তিদের দীর্ঘ সময়ের জন্য শুক্রাণু ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার নিশ্চিত কোনো প্রমাণ নেই।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন