কানাডার আবাসন খাত এখন অস্থিতিশীল। এ নিয়ে বাজারে নানা গুঞ্জন ছড়াচ্ছে। বাড়ির দামও অনেক বেড়েছে। বিদেশিদের বাড়ি কেনা সাময়িক সময়ের জন্য বন্ধ করার আগে এ বছরের ফেডারেল বাজেট ঘোষণার সময় আবাসন খাত নিয়ন্ত্রণে কানাডার অর্থমন্ত্রী ক্রিস্টিনা ফ্রিল্যান্ডও বেশ কিছু পদক্ষেপের ঘোষণা দেন।

দুই বছর কানাডায় বিদেশিদের বাড়ি কেনা নিষিদ্ধ করা ছাড়াও এক বছরের মধ্যে যাঁরা বাড়ি বিক্রি করবেন, তাঁদের জন্য কর বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে কানাডা সরকার। তবে এ ক্ষেত্রে কিছু ব্যতিক্রম থাকছে। কানাডায় অবস্থানরত বিদেশি শিক্ষার্থী ও দেশটির স্থায়ী বাসিন্দাদের ক্ষেত্রে এই নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য হবে না।

বাজার নিয়ন্ত্রণে চলতি বছরের ফেডারেল বাজেটে নতুন করে আবাসনের জন্য কয়েক শ কোটি ডলার বরাদ্দ করা হয়েছে। এ ছাড়া কানাডার নাগরিকেরা যাতে আবাসন খাতে আসতে পারেন, এ জন্য কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে নতুন একটি সঞ্চয়ী অ্যাকাউন্ট ও প্রথমবার বাড়ি কেনার ক্ষেত্রে কর ছাড় রয়েছে।

কানাডায় বাড়ির দাম বাড়া নিয়ে চাপে আছে দেশটির সরকার। গত বছর বাড়ির দাম প্রায় ২০ শতাংশ বেড়েছে। এ ছাড়া দেশটিতে বাড়িভাড়া বেড়েই চলেছে।