বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ও ব্রায়েন আরও বলেন, অমিক্রন পরিস্থিতি যেদিকেই যাক না কেন, ধনী দেশগুলো আবারও টিকার বাড়তি মজুতের পথে হাঁটছে।

এর আগে গত বুধবার ফাইজার ও বায়োএনটেকের প্রাথমিক পরীক্ষার ফল প্রকাশ করে বলা হয়, তাদের টিকার বুস্টার ডোজ করোনার অমিক্রন ধরনের বিরুদ্ধে কার্যকর সুরক্ষা গড়ে তোলে। স্বল্প পরিসরে চালানো এক গবেষণা শেষে প্রতিষ্ঠান দুটি জানিয়েছে, করোনার অন্য ধরনগুলোর বিরুদ্ধে টিকার দুটি ডোজ যে পরিমাণ সুরক্ষা দিয়ে এসেছে, অমিক্রনের ক্ষেত্রে একই সুরক্ষা পেতে প্রয়োজন হবে বাড়তি একটি ডোজের।

বুস্টার ডোজ নিয়ে এক বিবৃতি দিয়েছেন ফাইজারের প্রধান নির্বাহী অ্যালবার্ট বোরলা। সেখানে তিনি জানান, টিকার বাড়তি একটি ডোজ অমিক্রনের বিরুদ্ধে সুরক্ষা বাড়াবে। করোনার বিস্তার ঠেকাতে যত বেশি সম্ভব মানুষকে টিকার পূর্ণ ডোজ দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। পাশাপাশি সর্বোত্তম উপায় হিসেবে রয়েছে বুস্টার ডোজ।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়, ফাইজার ও বায়োএনটেকের তথ্য তারা পরীক্ষা করছে। ও’ব্রায়েন বলেন, অতিরিক্ত ডোজ অমিক্রনের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত সুরক্ষার ক্ষেত্রে উপকারী হলেও এখনো তা প্রাথমিক অবস্থায় আছে।

এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একটি বিশেষজ্ঞ প্যানেল বলেছে, করোনা থেকে সুরক্ষায় একই টিকার দুটি ডোজ দেওয়া ভালো। তবে যেসব দেশে টিকার স্বল্পতা রয়েছে, সেখানে মিশ্র ডোজ দেওয়া ভালো সমাধান। গতকাল এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে বিশেষজ্ঞ প্যানেলের চেয়ারম্যান আলেজান্দ্রো ক্রাভিয়েতো বলেন, ‘আমরা এখনো মনে করি, দুটি প্রাথমিক ডোজের জন্য একই ভ্যাকসিন ব্যবহার করাই সর্বোত্তম পন্থা।’

এর আগে সপ্তাহের শুরুতে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় বলা হয়, অ্যাস্ট্রাজেনেকা বা ফাইজারের টিকার সঙ্গে অন্য টিকার ডোজ মেশালে তাতে সবচেয়ে কম সুরক্ষা পাওয়া যায়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, গতকাল পাকিস্তান তাদের দেশে অমিক্রন শনাক্ত হওয়ার কথা জানিয়েছে। এর আগে বুধবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানায়, বিশ্বের ৫৭টি দেশে এখন পর্যন্ত অমিক্রন ধরনটি শনাক্ত হয়েছে।

বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন