বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আফসোস করে ম্যাক্স বলেন, ‘অমনোযোগী হওয়ার ফলে এমনটি হয়েছে। আমি প্রতিদিন বেশ কিছু এনএফটি বিক্রির তালিকায় দিয়ে থাকি। কিন্তু সেদিন এর দাম বসানোর সময় মনোযোগ দিতে পারিনি।’ ভুল করে ফেলার পর তৎক্ষণাৎ বুঝতে পেরেছিলেন তিনি। কিন্তু মুহূর্তেই সর্বনাশ ঘটে যায়। ফেরত নেওয়ার বাটন চেপেও কাজ হয়নি। ততক্ষণে মাথায় হাত ম্যাক্সের! কম দাম বলে এনএফটি দ্রুতই বিক্রি হয়ে যায়। পরে প্রথম ক্রেতা সেই এনএফটি আবার বিক্রি করেন ২ লাখ ২৭ হাজার ডলারের বেশি মূল্যে!

ম্যাক্স বলেন, ‘ক্লিক করার পরপরই বুঝতে পারি, কোথাও ভুল হয়ে গেছে। কিন্তু বাতিল করার আগেই কেউ একজন সেটা কিনে নেয়। ক্লিক করার পর আর সেটা ঠেকানোর উপায় ছিল না। অবশ্য যে এটি কিনে নিয়েছেন, তাঁর সঙ্গে আমার কোনো শত্রুতা নেই। এটা খেলারই অংশ। মার্কেটপ্লেসে মূল্য নির্ধারণ করার পর আমি অন্য কাজে ব্যস্ত হয়ে যাই। এর মধ্যে এসব ঘটে গেছে।’

এনএফটি নিয়ে এখন মেতেছেন টেসলার সিইও ইলন মাস্ক, শিল্পী লিন্ডসে লোহানের মতো তারকারাও। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পও এনএফটি প্ল্যাটফর্মে এসেছেন। এই প্ল্যাটফর্ম এখন ডিজিটাল শিল্পীদের ব্যাপক অর্থ উপার্জনের মাধ্যমে পরিণত হয়েছে। শিগগিরই হয়তো এটি মূলধারায় চলে আসবে।

বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন