থাইল্যান্ডে গত রোববার অনুষ্ঠিত বিতর্কিত নির্বাচনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ও ক্ষমতাসীন পুয়ে থাই পার্টির বিলুপ্তির আবেদন জানিয়ে গতকাল মঙ্গলবার রিট করেছে বিরোধীরা৷ গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে সাংবিধানিক আদালতে প্রধান বিরোধী ডেমোক্র্যাট পার্টির পক্ষে এক আইনজীবী রিট করেন৷

ডেমোক্র্যাট পার্টির আইনজীবী ভিরাত কালায়াসিরি বলেন, ‘আমি আদালতে পিটিশন জমা দিয়েছি৷ আদালত আমাদের জানিয়েছেন, এই রিট তাঁরা গ্রহণ করবেন কি না, তা আমাদের পরে জানাবেন৷’

ডেমোক্র্যাট পার্টির মুখপাত্র চাভানন্দ ইনতারাকমালায়সুত বলেন, ‘দলের পক্ষ থেকে সাংবিধানিক আদালতে রিট করা হয়েছে৷ এর মধ্যে প্রথমটি সরাসরি নির্বাচনসংশ্লিষ্ট৷ এতে আমরা দাবি করেছি, গত রোববারের ভোট গ্রহণের মধ্য দিয়ে সংবিধানের ৬৮ অনুচ্ছেদের লঙ্ঘন করা হয়েছে৷ ওই অনুচ্ছেদে সাংবিধানিক রাজতন্ত্রকে জনগণ যাতে অবজ্ঞা না করে, সে বিষয়ে উল্লেখ রয়েছে৷ সেই সঙ্গে অসাংবিধানিক উপায়ে ক্ষমতা দখলের চেষ্টাকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে৷’

মুখপাত্র আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী ইংলাক সিনাওয়াত্রার নেতৃত্বাধীন পুয়ে থাই পার্টির বিলুপ্তির দাবি জানিয়ে দ্বিতীয় রিটটি করা হয়েছে৷ জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে দলটি প্রমাণ করেছে স্বাভাবিক অবস্থায় ভোট গ্রহণ সম্ভব ছিল না৷ জরুরি অবস্থা ঘোষণার অপরাধে দলটির বিলুপ্তির এই দাবি জানানো হয়৷

এদিকে নির্বাচনী প্রচারণায় বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ তদন্ত করছে নির্বাচনী কমিশন৷ সব মিলিয়ে থাইল্যান্ডে তিন মাস ধরে চলা রাজনৈতিক সংকট শিগগিরই শেষ হবে না বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷

তবে ইংলাকের জন্য একটি সুসংবাদ আছে৷ তাঁর সরকার পতনের দাবিতে রাজধানী ব্যাংককের বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীদের সংখ্যা কমে গেছে৷ রয়টার্স ও বিবিসি৷

বিজ্ঞাপন
বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন