অনৈতিক কর্মকাণ্ডের অভিযোগ ওঠার জেরে গতকাল মঙ্গলবার পার্লামেন্ট থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন সাবেক ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জ্যেষ্ঠ এমপি ম্যালকম রিফকিন্ড। কনজারভেটিভ পার্টির জ্যেষ্ঠ নেতা রিফকিন্ড ও লেবার পার্টির জ্যেষ্ঠ নেতা জ্যাক স্ট্র (আরেক সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী) অর্থের বিনিময়ে একটি কোম্পানিকে সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। খবর এএফপির।
ম্যালকম রিফকিন্ড গতকাল ঘোষণা দেন, পুনর্নির্বাচিত হতে আসন্ন পার্লামেন্ট নির্বাচনে লড়বেন না তিনি। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি অনিশ্চয়তা দূর করতে বরং...এ পার্লামেন্টের মেয়াদ শেষে পদত্যাগ করাই উত্তম কাজ হবে।’
৭ মে অনুষ্ঠেয় সাধারণ নির্বাচন সামনে রেখে ব্রিটিশ পার্লামেন্ট আগামী ৩০ মার্চ ভেঙে দেওয়া হবে। রিফকিন্ড ১৯৭৪ সালে প্রথম এমপি নির্বাচিত হন। কেনসিংটন আসনের এই এমপি পার্লামেন্টের গোয়েন্দা ও নিরাপত্তা কমিটির চেয়ারম্যান। বিবৃতিতে তিনি এ পদটিও ত্যাগ করার কথা জানান।
রিফকিন্ড ও জ্যাক স্ট্রয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগে বলা হয়েছে, একটি কল্পিত কোম্পানির প্রতিনিধির ছদ্ম পরিচয়ে যাওয়া ব্রিটিশ দৈনিক দ্য টেলিগ্রাফ ও চ্যানেল ফোরের লোককে তাঁরা সুবিধা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। গোপন ক্যামেরায় তাঁদের কথাবার্তা ধারণ করা হয়। তবে দুই নেতাই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন