বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তলপেটে তীব্র ব্যথা নিয়ে ওই ব্যক্তি কয়েক দিন আগে বন্দরনগরী ক্লাইপেদার একটি হাসপাতালে ভর্তি হন। তাঁর পেটব্যথার কারণ খুঁজে দেখতে এক্স-রে করেন চিকিৎসকেরা। এক্স–রে দেখে তো চিকিৎসকদের চক্ষু ছানাবড়া। পেটের ভেতর লম্বা লম্বা ধাতব বস্তু। তা–ও একটি–দুটি নয়, অনেক। এগুলোর দৈর্ঘ্য সর্বোচ্চ ১০ সেন্টিমিটার বা ৪ ইঞ্চি পর্যন্ত। পরে অস্ত্রোপচার করা হয়। এতে বেরিয়ে আসে এক কিলোগ্রামের বেশি পেরেক ও স্ক্রু।

চিকিৎসক সারুনাস দাইলিদেনাস স্থানীয় গণমাধ্যমকে বলেন, অস্ত্রোপচারে তিন থেকে চার ঘণ্টা সময় লেগেছে। এ সময় ওই ব্যক্তির পেট থেকে একে একে সব ধাতব বস্তু বের করা হয়। অস্ত্রোপচার সফল হয়েছে বলে জানান তিনি।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অস্ত্রোপচারে পাওয়া পেরেক ও স্ক্রুর ছবিও সরবরাহ করে। এ ছবি স্থানীয় কিছু পত্রপত্রিকায় ফলাও করে ছাপাও হয়।

অস্ত্রোপচারের নেতৃত্বে ছিলেন হাসপাতালের প্রধান শল্যচিকিৎসক আলগিরদাস স্লেপাভিসিয়াস। তাঁর ভাষ্য, অবিশ্বাস্য। এমন জিনিস তাঁরা আগে কখনো দেখেননি। তিনি জানান, মদ ছাড়ার পর গত মাস থেকে ওই ব্যক্তি পেরেক, স্ক্রু—এসব ধাতব বস্তু গিলতে শুরু করেন। কেন তিনি এমনটা করেছেন, তা জানাননি। অস্ত্রোপচারের পর রোগীর অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানান আলগিরদাস স্লেপাভিসিয়াস।

বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন