বিড়ালকে বিয়ে করে মোটেও বিব্রত নন ডেবোরা হজ। বিয়ের পর তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্টও দিয়েছেন। পোস্টে লিখেছেন, ‘হারানোর কিছু নেই। সবকিছু অর্জন করতে হয়।’ আরও লিখেছেন, তাঁর সন্তানদের পর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো এই বিড়াল।

ডেবোরা হজ মনে করছেন, এরপর তিনি যে বাসাই ভাড়া নিতে যাবেন, সেই বাসার মালিকই জানবেন ইন্ডিয়া তাঁর সঙ্গে থাকবে। যেকোনো পরিস্থিতিতেই ইন্ডিয়া তাঁর পাশে থাকবে।

পোষা বিড়ালটির প্রতি হজের ভালোবাসা কতটুকু, তার বহিঃপ্রকাশ ঘটে তাঁর বক্তব্যে। তিনি বলেন, ‘ইন্ডিয়ার কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হতে আমি অস্বীকৃতি জানিয়েছি। ওর কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার বদলে আমি রাস্তায় থাকব।’

প্রাণী পোষার অভ্যাস পুরোনো ডেবোরা হজের। এর আগে সিরি ও স্টারশাইন নামে তাঁর দুটি কুকুর ছিল। কিন্তু বাড়ির মালিকের শর্তের কারণে তিনি ওই দুটি কুকুর ত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছিলেন। এটি বেশ আগের ঘটনা। এরপর প্রায় পাঁচ বছর আগে বর্তমানের বাসায় ওঠেন ডেবোরা হজ। এই বাসায় ওঠার পর তাঁর সঙ্গে একটি বিড়াল ছিল। এটির নাম ছিল ‘জামাল’। কিন্তু বাড়ির মালিকের কারণে এই বিড়ালও ছাড়তে বাধ্য হন। তাই এবার আর কোনো ঝুঁকি নেননি তিনি।

ইন্ডিয়াকে বিয়ে করে ফেললেন। তবে আগের যে বিড়ালটি ছিল সেই সিরি, স্টারশাইন ও জামালের শোক এখনো কাটিয়ে উঠতে পারেননি তিনি। বলেন, ‘ওই তিনটি পোষা প্রাণী হারানো ছিল আমার জন্য হৃদয়বিদারক ঘটনা।’

বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন