এ ঘোষণার পাশাপাশি সুরযেওয়ালা আরও জানান, আগামী মে মাসের ১৩ থেকে ১৫ তারিখ রাজস্থানের উদয়পুরে দলের এক শিবির অনুষ্ঠিত হবে। তার আনুষ্ঠানিক নাম ‘নব সংকল্প চিন্তন শিবির।’ দেশের বিভিন্ন রাজ্য থেকে অন্তত ৪০০ নেতা তিন দিনের ওই শিবিরে যোগ দেবেন। কী করে দলকে শক্তিশালী করে তোলা যায়, ওই শিবিরে সে বিষয়ে আলোচনার পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

ভোটকুশলী পি কের সঙ্গে গত এক সপ্তাহে অন্তত পাঁচবার সোনিয়া গান্ধীর বৈঠক হয়েছে। কিন্তু আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো কিছু জানানো হয়নি। কংগ্রেসের বিভিন্ন সূত্র অনুযায়ী, ২০২৪ সালে বিজেপির মোকাবিলায় কংগ্রেস কীভাবে ঘুরে দাঁড়াতে পারে, সে বিষয়ে পি কে তাঁর পরিকল্পনা সোনিয়ার কাছে পেশ করেছেন। সেই পরিকল্পনা বিবেচনার জন্য সোনিয়া আটজনের এক কমিটি গড়েন। ওই আট নেতা হলেন পি চিদাম্বরম, অম্বিকা সোনি, দিগ্বিজয় সিং, জয়রাম রমেশ, কে সি বেনুগোপাল, মুকুল ওয়াসনিক, রণদীপ সিং সুরযেওয়ালা ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। সোমবার সোনিয়া ওই কমিটির সঙ্গে বৈঠক করেন। সূত্র অনুযায়ী, কমিটির সদস্যরা পি কের অধিকাংশ সুপারিশ নীতিগতভাবে মেনে নিয়েছেন। কিন্তু পি কে কংগ্রেসে যোগ দিচ্ছেন কি না, দিলেও কোন পদে, সে বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সোমবারও কিছু জানানো হলো না। ফলে তাঁর কংগ্রেসে যোগদানের বিষয়টি ঘিরে সাসপেন্স টিকে থাকল।

কংগ্রেসের সঙ্গে আলোচনা অব্যাহত রাখার পাশাপাশি গত রোববার পি কের সংস্থা ‘আইপ্যাক’ তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতির (টিআরএস) সঙ্গে ২০২৩ সালের বিধানসভা নির্বাচন তদারকির জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়। পি কের এ সিদ্ধান্ত কংগ্রেস ভালোমনে নেয়নি।

কারণ, তেলেঙ্গানায় শাসক দল টিআরএসের প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেস। সোমবার এ নিয়ে সুরযেওয়ালা অবশ্য কোনো মন্তব্য করেননি। তিনি বলেন, পি কের পেশ করা রিপোর্ট নিয়ে আট সদস্যের কমিটির সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা করেই সোনিয়া নতুন এমপাওয়ার্ড অ্যাকশন গ্রুপ গঠন করেছেন। এই গোষ্ঠীই ২০২৪–এর মোকাবিলায় যাবতীয় সিদ্ধান্ত নেবে। নতুন এই গোষ্ঠীর সদস্য কারা বা নেতৃত্বে কে, সে বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি। সুরযেওয়ালা বলেন, উদয়পুরের ‘নব সংকল্প চিন্তন শিবিরে’ কৃষক, খেতমজুর, তফসিল জাতি, উপজাতি ও অনগ্রসর শ্রেণি, ধর্মীয় ও ভাষাগত সংখ্যালঘু, মহিলা, যুবসমাজের সমস্যা ও সবার ক্ষমতায়ন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনার পর দলীয় নীতি রচিত হবে। সেই সঙ্গে দলকে শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে কী ধরনের সাংগঠনিক পরিবর্তন আনা দরকার, সেটাও আলোচিত হবে।

বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন