default-image

চলতি দশকে প্রথমবারের মতো বিশ্বের ধনীদের সম্পদ কমেছে। গত বছর বিশ্বের ধনী ব্যক্তিরা হারিয়েছেন প্রায় ৩৮ হাজার ৮০০ কোটি ডলার। দুটি প্রতিষ্ঠানের দেওয়া এক বৈশ্বিক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানা গেছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আজ শুক্রবার প্রকাশিত হয়েছে ‘ইউবিএস/পিডব্লিউসি বিলিয়নিয়ার্স রিপোর্ট’। এতে বলা হয়েছে, বিশ্বের শত কোটিপতিদের সম্পদ কমেছে প্রায় ৩৮ হাজার ৮০০ কোটি ডলার। এতে বিশ্বের সবচেয়ে ধনীদের সম্পদ কমে হয়েছে ৮ দশমিক ৫৩৯ ট্রিলিয়ন ডলার।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশেষ করে চীনে কমে গেছে শত কোটিপতির সংখ্যা। যুক্তরাষ্ট্রের পরই সবচেয়ে বেশি ধনী আছে এই দেশে। বলা হচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যকার বাণিজ্য যুদ্ধ এবং বিশ্বব্যাপী রাজনৈতিক অস্থিরতা ও অনিশ্চয়তার কারণে ধনীদের সম্পদ কমে যাচ্ছে। এই সব কারণে ধনীদের নগদ আয় যতটা না হচ্ছে, তার চেয়ে ঋণ হচ্ছে বেশি।

ইউবিএস-এর কর্মকর্তা জোসেফ স্ট্যাডলার বলেছেন, ২০১৮ সালে কোটিপতিদের সম্পদ কমেছে। ২০০৮ সালের পর এই প্রথম এমন ঘটনা ঘটল। মূলত ভূরাজনৈতিক কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, চীনের শেয়ারবাজার আর আগের মতো রমরমা অবস্থায় নেই। সূচক কমেছে অনেকখানি। তবে সূচকের পতন সত্ত্বেও চীনে প্রতি ২ থেকে আড়াই দিনে একজন নতুন শত কোটিপতি সৃষ্টি হচ্ছে। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রে ধনীদের তালিকায় সিংহভাগই হচ্ছেন প্রযুক্তিবিষয়ক উদ্যোক্তারা।

প্রতিবেদনে অবশ্য ধনীদের জন্য আশার বাণীও আছে। বলা হচ্ছে, চলতি বছর বিশ্বের ধনীদের সম্পদ ফের বাড়বে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0