বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদিকে রাজ্যের রাজধানী চেন্নাই শহরে বৃষ্টির কারণে প্লাবিত হয়েছে। ইন্ডিয়া টুডের খবরে বলা হয়েছে, শহরের বিভিন্ন স্থানে ২৭টি গাছ উপড়ে পড়ার ঘটনা জানা গেছে। এ ছাড়া শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনে ১৪৫টি পাম্প চালু রাখা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সারা দিন চেন্নাই ও আশপাশের এলাকাগুলোয় ভারী বৃষ্টি হয়েছে। ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তরের দেওয়া তথ্য অনুসারে, চেন্নাইয়ের এমআরসি নগরে বৃহস্পতিবার রাত ৮ পর্যন্ত ১৯৮ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়া তিনটি এলাকা দেড় শ মিলিমিটারের বেশি বৃষ্টি হয়েছে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক মন্ত্রী রামাচরণ বলেন, পরিস্থিতি সামাল দিতে কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়েছে। গ্রেটার চেন্নাই করপোরেশনের কমিশনার গগনদ্বীপ সিং বেদি ও অন্যান্য কর্মকর্তারা ওই কন্ট্রোল রুমে থেকে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন। জনসাধারণকে ঘর থেকে বের না হতে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

চেন্নাইয়ে বৃষ্টির কারণে কর্মজীবীরা ব্যাপক ভোগান্তির শিকার হয়েছেন। এমনই একজন ভুঁমাথি। তিনি অফিসে দুই ঘণ্টা সময় বেশি ছিলেন। তিনি বলেন, কোনো বাস পাওয়া যাচ্ছিল না। আর ট্যাক্সিক্যাবে ভাড়া দেখাচ্ছিল চারগুণ বেশি।

কর্মজীবীদের ভোগান্তি কমাতে বৃহস্পতিবার এক ঘণ্টা বেশি চালু রাখা হয়েছিল চেন্নাইয়ের মেট্রোরেল সেবা। আবার পানি জমে যাওয়ার কারণে চারটি সাবওয়ে বন্ধ রাখা হয়েছিল। আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার রাতে ভারী বৃষ্টি ও শুক্রবার মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে সেখানে।

বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন