default-image

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস বলেছেন, করোনার টিকা নিজে থেকে মহামারি থামিয়ে দেবে না। তিনি এমন সময়ে এই মন্তব্য করলেন, যখন দুটি প্রতিষ্ঠান তাদের টিকার কার্যকারিতার বিষয়ে প্রাথমিক বিশ্লেষণের ফল ঘোষণা করেছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, আজ সোমবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান এমন বক্তব্য দিয়েছেন। তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস বলেন, ‘আমাদের কাছে যেসব সরঞ্জাম রয়েছে, টিকা তার পরিপূরক হতে পারে, প্রতিস্থাপক নয়।’ তিনি আরও বলেন, টিকা নিজ থেকে কখনো মহামারির সমাপ্তি ঘটাবে না।

মাঝে খানিকটা কমে এলেও অনেক দেশে কোভিড-১৯ রোগের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়ে গেছে। এর মধ্যেই বিভিন্ন ওষুধ প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানের তৈরি করোনার টিকার কার্যকারিতা বিষয়ে তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। সম্প্রতি ফাইজার ও বায়োএনটেক দাবি করেছে, তাদের তৈরি করোনা টিকা ৯০ শতাংশ কার্যকর। আজ যুক্তরাষ্ট্রের আরেক বহুজাতিক কোম্পানি মডার্নার দাবি, তাদের তৈরি টিকা ৯৪ দশমিক ৫ শতাংশ কার্যকর।

বিজ্ঞাপন

আজ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বলেছেন, প্রথম দিকে করোনার ভ্যাকসিন স্বাস্থ্যকর্মী, বয়স্ক ব্যক্তি ও যারা করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে আছেন, তাঁদের ওপর প্রয়োগ করা হবে। আশা করা হচ্ছে এর ফলে মৃতের সংখ্যা কমে আসবে। ভ্যাকসিন স্বাস্থ্যসেবাপ্রক্রিয়াকে করোনা মোকাবিলায় সাহায্য করবে।

তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস হুঁশিয়ার করে বলেন, এরপরও ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার অনেক জায়গা থেকে যাবে। নজরদারি জারি রাখতে হবে, মানুষকে করোনা শনাক্তের পরীক্ষা করাসহ আক্রান্ত ব্যক্তিকে আইসোলেশনে থাকতে হবে। আলাদা করে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তির যত্ন নিতে হবে।

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস শনাক্ত রোগীর সংখ্যা প্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি। প্রায় ১৩ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে এই ভাইরাসের কারণে। ওয়ার্ল্ডোমিটারসের তথ্যমতে, এখন পর্যন্ত বিশ্বে করোনা থেকে সেরে ওঠা মানুষের সংখ্যা ৩ কোটি ৮১ লাখ ৩৬ হাজার ৮৬।

মন্তব্য পড়ুন 0