default-image

মানুষ চালাকি করে মানুষকে বোকা বানায়—এ কথা সবার জানা। কিন্তু অন্য প্রাণীও যে মানুষকে এভাবে বোকা বানাতে পারে, তা হয়তো খুব কম মানুষই বিশ্বাস করতে চাইবেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়া একটি কুকুরের ভিডিও এর প্রমাণ। কুকুরটি খাবার নিয়ে রীতিমতো তার মালিককে বোকা বানিয়ে ছেড়েছে এবং সেটি করেছে সে চরম স্মার্টনেসের সঙ্গে।

ভিডিওটি প্রথমে আপলোড করা হয়েছিল ভিডিও শেয়ারের চীনা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টিকটকে। এরপর তা টুইটারে শেয়ার করেন ব্রিটিশ নাগরিক হেলেনা মরিসে। তারপরই তা ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। এ পর্যন্ত টুইটারে ভিডিওটি দেখা হয়েছে ৩৯ লাখের বেশি বার। মন্তব্যও এসেছে অনেক।

বিজ্ঞাপন

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, সম্প্রতি অনলাইনে বেশ কিছু ভিডিও আপলোড করা হয়েছে। এসব ভিডিওতে মূলত পোষা প্রাণীর ধৈর্য পরীক্ষা করা হয়েছে। ভিডিওগুলোয় পোষা প্রাণীর সামনে খাবার রেখে তা না খাওয়ার নির্দেশ দেন মালিক। এরপর দেখা হয়, প্রাণীটি সেই নির্দেশ কতক্ষণ মানে। কোনো ভিডিওতে দেখা গেছে, পোষা প্রাণী, বিশেষ করে কুকুর ধৈর্য নিয়ে অপেক্ষা করেছে। আবার কোনোটিতে মালিকের নির্দেশ কানেই তোলেনি পোষা প্রাণী।

তবে যে কুকুরটির ভিডিও ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে, সে ভিন্ন কিছু করেছে। ভিডিওতে দেখা যায়, কুকুরটির মালিক ড্রয়ার থেকে এক টুকরা খাবার নিয়ে টেবিলের ওপর রেখে চলে যান। কুকুরটি পেছন ফিরে মালিকের প্রস্থানের বিষয়ে পুরোপুরি নিশ্চিত হয়ে খেয়ে নেয় খাবারটি। এরপরই শুরু হয় প্রাণীটির চালাকি। যে ড্রয়ার থেকে মালিক খাবার বের করেছিলেন, সেটা খুলে আরেক টুকরা খাবার টেবিলে এনে রাখে কুকুরটি। এরপর আবার এগিয়ে গিয়ে ড্রয়ারটি ঠেলে বন্ধ করে দেয়। ফিরে এসে টেবিলের ওপর মুখ রেখে চুপচাপ বসে থাকে। কিছু পর মালিক ফিরে এসে দেখেন, খাবার খায়নি কুকুরটি। তিনি এরপর নিজে হাতে তুলে খাইয়ে দেন কুকুরটিকে। কিন্তু ক্যামেরায় ধারণ হয়ে যাওয়া ভিডিওটি পরে ভিন্ন কিছুরই সাক্ষ্য দিয়েছে।

ভিডিওটি দেখে অনেকেই অনেক মন্তব্য করেছেন। এক টুইটার ব্যবহারকারী মন্তব্য করেছেন, কুকুরটি যে ড্রয়ার বন্ধ করার কথা ভুলে যায়নি, তাতেই তিনি অভিভূত হয়েছেন। টুইটারে ভিডিওটি শেয়ারকারী হেলেনা মরিসে লিখেছেন, বিড়াল কিছুতেই এমনটা করত না। কেউ কেউ অবশ্য কুকুরের কৌশল নিয়ে প্রশ্নও তুলেছেন। তাঁরা বলছেন, কুকুরটি সেটাই করেছে, যা তাকে করতে শেখানো হয়েছে।

মন্তব্য পড়ুন 0