default-image

রাশিয়ার তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা স্পুতনিক-ভি অনুমোদন দিয়েছে ইরান। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ এ কথা জানান। ভূরাজনৈতিক প্রেক্ষাপট বিবেচনায় টিকার অনুমোদনকে মস্কোর জয় হিসেবে দেখা হচ্ছে।
বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

মধ্যপ্রাচ্যে করোনাভাইরাসের ভয়াবহ সংক্রমণের সঙ্গে লড়াই করতে হচ্ছে ইরানকে। দেশটির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, তারা নিজস্ব টিকা তৈরির পাশাপাশি কেবল রাশিয়া, ভারত বা চীনের তৈরি টিকার ওপর ভরসা করবে।

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভের সঙ্গে আলোচনার পর গত সোমবার স্পুতনিক–ভি টিকাটি অনুমোদনের বিষয়টি নিশ্চিত করেন জারিফ। তিনি বলেন, ভবিষ্যতে রাশিয়ার টিকা কেনার পাশাপাশি যৌথ উৎপাদন করবে তাঁর দেশ।

বিজ্ঞাপন

এ মাসের শুরুর দিকে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য থেকে করোনার টিকা কেনায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে ইরান। দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি টিকা আমদানি নিষিদ্ধ করার ঘোষণা দেন। টেলিভিশনে প্রচারিত এক বক্তৃতায় খামেনি বলেন, পশ্চিমা দেশে তৈরি টিকায় আস্থা পাচ্ছেন না।

অবশ্য এর আগে রাশিয়ার টিকা কেনা প্রসঙ্গে ইরান বলেছিল, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করবে তারা।

সোভিয়েত যুগের কৃত্রিম উপগ্রহের নামে নামকরণ করা টিকা গত বছরের আগস্টেই জরুরি অনুমোদন দেয় রাশিয়া। বড় আকারের পরীক্ষা ছাড়াই টিকাটির অনুমোদন দেওয়ায় কিছু বিশেষজ্ঞ টিকাটি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

স্পুতনিক–ভি টিকা প্রস্তুতকারীরা তখন থেকেই বলছেন, টিকাটি ৯০ শতাংশ কার্যকর। রাশিয়ার বাইরে কয়েকটি দেশ টিকাটি নিতে শুরু করেছে, যার মধ্যে আর্জেন্টিনার নামও রয়েছে।

রাশিয়া গত সপ্তাহে তাদের টিকার জন্য ইউরোপীয় ইউনিয়নে নিবন্ধনের আবেদন করেছে। অনুমোদনের আগেই ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্যদেশ হাঙ্গেরি ২০ কোটি ডোজ টিকা কিনে ফেলেছে।

বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন