বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গুয়াতেমালার কর্তৃপক্ষের সন্দেহ, পাচারকারীরা এই অভিবাসনপ্রত্যাশীদের পরিত্যক্ত অবস্থায় ফেলে গেছে। এই অভিবাসনপ্রত্যাশীরা মেক্সিকো হয়ে যুক্তরাষ্ট্রে যেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তাঁরা প্রতারণার শিকার হয়েছেন।

উদ্ধার অভিবাসনপ্রত্যাশীদের মধ্যে ১০০ জনের বেশি সংকট-আক্রান্ত দেশ হাইতির নাগরিক। এই অভিবাসনপ্রত্যাশীদের মধ্যে নেপাল ও ঘানার নাগরিকেরাও আছেন।

অভিবাসনপ্রত্যাশীদের উদ্ধারের পর গুয়াতেমালা পুলিশের এক মুখপাত্র বলেন, ‘আমরা কন্টেইনারের ভেতর থেকে কান্না ও ধাক্কাধাক্কির শব্দ শুনতে পাই। কন্টেইনারের দরজা খুলে ভেতরে নথিপত্রহীন ১২৬ জন অভিবাসনপ্রত্যাশীকে দেখতে পাই।’

অভিবাসনপ্রত্যাশীদের উদ্ধারের পর তাঁদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেন গুয়াতেমালার সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। পরে তাঁদের গুয়াতেমালা অভিবাসন ইনস্টিটিউট পরিচালিত একটি আশ্রয়কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়।

গুয়াতেমালার অভিবাসন কর্তৃপক্ষের মুখপাত্র আলেজান্দ্রা মেনা বলেন, উদ্ধার অভিবাসনপ্রত্যাশীদের গন্তব্য ছিল যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু তাঁরা প্রতারণার শিকার হয়েছেন। এখন তাঁদের হন্ডুরাস সীমান্তে ফেরত পাঠানো হবে। পরে তাঁদের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

আগের দিনই মেক্সিকোর কর্তৃপক্ষ ৬৫২ জন অভিবাসনপ্রত্যাশীকে আটক করে। এর মধ্যে প্রায় ৩৫০টি শিশু।

বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন