সাড়ে আট কোটি মানুষকে টিকা দিতে চাইছে অস্ট্রেলিয়া

বিজ্ঞাপন
default-image

পরীক্ষাধীন দুটি টিকা সফল প্রমাণিত হলে প্রায় সাড়ে আট কোটি ডোজ টিকা জনগণকে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে অস্ট্রেলিয়া। দেশটির প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বলেছেন, তাঁর দেশ দুটি টিকা পেতে চুক্তি করেছে।

এ দুটি টিকার একটি হচ্ছে অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা এবং আরেকটি কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও সিএসএলের টিকা। বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

মরিসন আরও বলেছেন, দুটি টিকা সফল প্রমাণিত হলে তা জনগণকে বিনা মূল্যে দেওয়া হবে। ব্যবহারের জন্য টিকার অনুমোদন পাওয়া গেলে আগামী বছরেই তা জনগণকে দেওয়া শুরু হবে। এ জন্য অস্ট্রেলিয়ার প্রায় ১২৪ কোটি মার্কিন ডলার খরচ হবে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তাঁর দেশের আড়াই কোটি মানুষ আগামী জানুয়ারি মাস থেকে টিকা পেতে শুরু করবেন। অবশ্য এতে এখনো কোনো নিশ্চয়তা দেওয়া যাচ্ছে না। তবে টিকা পাওয়ার জন্য যে চুক্তি করা হয়েছে, তাতে টিকা পাওয়া দেশের প্রথম সারিতেই থাকবে অস্ট্রেলিয়া। এ জন্য দেশটির বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে সবুজ সংকেত আগে পেতে হবে।

অক্সফোর্ড ও কুইন্সল্যান্ডের দুটি টিকার ক্ষেত্রেই জনগণকে দুই ডোজ করে টিকা নিতে হবে।

অস্ট্রেলিয়ায় করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে ২৬ হাজার মানুষের আর সেখানে মারা গেছেন ৭৬৯ জন। ভিক্টোরিয়া অঞ্চলে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর দেশটিতে অধিকাংশ মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। গতকাল রোববার ভিক্টোরিয়া অঞ্চলে দুই সপ্তাহের জন্য কঠোর লকডাউন চালু করা হয়েছে। মেলবোর্নের লোকজনকেও নভেম্বর মাস পর্যন্ত একসঙ্গে দল বেঁধে থাকতে নিষেধ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অস্ট্রেলিয়া অধিকাংশ টিকা নিজ দেশেই তৈরি করার পরিকল্পনা করেছে। এসব টিকা দেশটির জৈবপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান সিএসএল উৎপাদন করবে বলে সরকারি ঘোষণায় বলা হয়েছে। দেশটি ৩ কোটি ৩৮ লাখ ডোজ অক্সফোর্ডের টিকা ও ৫ কোটি ১০ লাখ ইউনিট কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের টিকার ফরমাশ দিয়েছে।

অক্সফোর্ডের টিকাটি ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের তৃতীয় ধাপে রয়েছে এবং এটি ৩০ হাজার মানুষের ওপর পরীক্ষা করা হচ্ছে। টিকার মধ্যে বিশ্বের অন্যতম অগ্রগামী টিকা এটি। অস্ট্রেলিয়া গত মাসে এ টিকা আগাম পাওয়ার জন্য ফরমাশ দেয়।

অন্যদিকে, কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের টিকা ক্লিনিক্যাল পরীক্ষার প্রথম ধাপে রয়েছে। অস্ট্রেলিয়া দেশের ৯৫ শতাংশ মানুষকে টিকা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করতে চায়।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অস্ট্রেলিয়া বলছে, তারা প্রতিবেশী দেশগুলোর জন্য টিকা নিশ্চিত করতে কাজ করবে। ফরমাশ করা বাড়তি টিকা তারা দান করতে পারে বা প্রকৃত দামে অন্য দেশ বা সংস্থার কাছে বিক্রি করতে পারে।

বিশ্বের অনেক দেশ সম্ভাব্য টিকা পাওয়ার জন্য চুক্তি করতে হিমশিম খাচ্ছে। এতে দরিদ্র দেশগুলো ঠিকমতো টিকা পাবে কি না, তা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে।

গত জুলাই মাসে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলেছিল, বিশ্বের ১৬৫টি দেশ একটি তহবিল গঠনের জন্য চুক্তি করেছে, যাতে সম্পদশালী দেশগুলো দরিদ্র দেশগুলোর জন্য টিকা পেতে সাহায্য করবে। বর্তমানে বিশ্বে ১৪০টির বেশি সম্ভাব্য টিকা উন্নয়নে কাজ চলছে। এর মধ্যে এক ডজনের বেশি টিকা ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা পর্যায়ে রয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন