করোনার টিকা
রয়টার্স ফাইল ছবি

এশিয়া, লাতিন আমেরিকা ও মধ্যপ্রাচ্যের অন্তত ১০টি দেশ রাশিয়ার টিকা পেতে চুক্তি করেছে। ওয়ালস্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে। রাশিয়ার তৈরি টিকার নাম স্পুটনিক–৫।

রাশিয়ার টিকা পেতে চুক্তি করা দেশগুলোর মধ্যে একেবারে এগিয়ে ব্রাজিল, দক্ষিণ আফ্রিকা, মেক্সিকো ও সৌদি আরব। রাশিয়া বলেছে, এর বাইরে আরও অন্তত ১০টি দেশ টিকা কিনতে চায়। এখন পর্যন্ত ১২০ কোটি ডোজ টিকার অর্ডার পেয়েছে বলেও দাবি রাশিয়ার।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) সর্বশেষ ১৭ সেপ্টেম্বরের তালিকা অনুযায়ী, এখন সারা বিশ্বে অন্তত ১৮০টি টিকার উদ্যোগ চালু আছে। এর মধ্যে ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল বা মানবশরীরে পরীক্ষার চলছে ৩৬টি টিকার। এর মধ্যে ৯টি টিকা তৃতীয় ধাপের ট্রায়ালে আছে। রাশিয়ার এই টিকাও আছে এর মধ্যে। গত আগস্টের দ্বিতীয় সপ্তাহে রাশিয়ার টিকাই সাধারণ মানুষের দেহে প্রয়োগের অনুমতি পায়। বিশ্বের প্রথম কোনো দেশে সাধারণের দেহে প্রয়োগের অনুমতি এই টিকাই প্রথম পায়। যদিও চীনের দাবি, এরও আগে তারা টিকার সীমিত ব্যবহার শুরু করেছিল।

রাশিয়া ও চীনের টিকার পাশাপাশি এখন অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার ট্রায়াল চলছে। টিকার দৌড়ে আছে মডার্না ও ফাইজারের টিকা।

ভারতের ইংরেজি দৈনিক ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটির তেলেঙ্গানা রাজ্যের হায়দরাবাদভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ড. রেড্ডিস ল্যাবরেটরি রাশিয়ার টিকার শেষ ধাপের পরীক্ষা করছে। এরপর তারা ১০ কোটি টিকা বিতরণ করবে।