২৩ বছর পর ফিরে পেলেন মা-বাবাকে

বিজ্ঞাপন

১৯৯০ সালের ঘটনা। মাত্র পাঁচ বছর বয়সে অপহূত হন লু গ্যাং। বিক্রি করে দেওয়া হয় একটি নতুন পরিবারের কাছে। আসল মা-বাবা কিংবা গ্রামের নাম মনে ছিল না। তাই কখনো স্বজনদের কাছে ফেরার সম্ভাবনা ছিল না বললেই চলে। কিন্তু ২৩ বছর পর সেই অভাবনীয় ব্যাপারটিই ঘটল। পরিবারকে খুঁজে পেলেন লু।
নুডলস খুবই প্রিয় ছিল লুর (২৮)। সন্তানকে ফিরে পেয়ে ছেলের জন্য সেই নুডলসই রান্না করে দিলেন মা। সর্বশেষ মায়ের হাতে তৈরি নুডলস খেয়েছেন সেই শৈশবে। কিন্তু এই সাধারণ খাবারটিই এখন পুনর্মিলনের প্রতীক হয়ে উঠেছে। ছেলের সামনে এক বাটি নুডলস দিয়ে লুর মা বললেন, ‘শুধুই খেয়ে যাও। অন্য কোনো চিন্তা নয়।’ ছেলে খাচ্ছে আর মায়ের কপাল বেয়ে ঝরছে আনন্দাশ্রু।
লুদের বাড়ি চীনের সিচুয়ান প্রদেশের ইয়াওজিয়া গ্রামে। তখন তাঁর বাবা নির্মাণশ্রমিকের কাজ করতেন। আর মা চালাতেন দোকান। লুর একটি ছোট ভাইও আছে।
অপহরণের বর্ণনা দিয়ে লু বলেন, ‘আমি বিদ্যালয়ে যাচ্ছিলাম। পথে দুই নারী-পুরুষ দাঁড়িয়ে ছিলেন। আমি ভেবেছিলাম, তাঁরা আমার বাবার বন্ধু। তাই তাঁদের সঙ্গে চলে গেলাম। এরপর এ গাড়ি ও গাড়ি করে আমাকে নিয়ে যাওয়া হলো অনেক দূরে। পরে জানলাম সেটি ৯০০ মাইল দূরে ফুজিয়ান প্রদেশ। আমার নতুন নাম দেওয়া হলো। নতুন মা-বাবার সঙ্গে নতুন একটি বোনও পেলাম।’
কিন্তু লুর মন পড়ে থাকত বাড়িতে। মা-বাবার কাছে ফিরে যাওয়ার জন্য ব্যাকুল ছিলেন তিনি। তাই শৈশবের স্মৃতি সব সময় আওড়ে বেড়াতেন। অবশেষে সেই স্মৃতিই তাঁকে মা-বাবার কাছে ফিরিয়ে দিল।
হারিয়ে যাওয়া শিশুদের ঠিকানা খুঁজে পেতে চীনের অসংখ্য স্বেচ্ছাসেবী কাজ করেন। তাঁদেরই কল্যাণে দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর মা-বাবার কোলে ফিরে আসতে পারলেন লু। বিবিসি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন