default-image

ঋণের দায়ে ডুবছে নাইজেরিয়া। আগামী বছরের বাজেটের জন্য নতুন করে ঋণ নিচ্ছে আফ্রিকার দেশটি। নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ বুহারি গত বৃহস্পতিবার দেশটির আইন পরিষদ ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে ২০২১ সালের জাতীয় বাজেট পেশ করেন। তাতে নতুন করে আরও ঋণ নেওয়ার বিষয়টি উঠে এসেছে। আফ্রিকাভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আফ্রিকা নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

বুহারি বলেছেন, তহবিল জোগাতে তাঁদের ৪ দশমিক ৩ ট্রিলিয়ন নায়রা (নাইজেরীয় মুদ্রা) ঋণ করতে হবে, যা তাঁদের মোট বাজেটের এক–তৃতীয়াংশ। দেশটি মোট ১৩ ট্রিলিয়ন নায়রা (৩৩ দশমিক ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার) বাজেট পেশ করেছে।

বিজ্ঞাপন

নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট বলেন, ৪২০ বিলিয়ন নায়রা সামাজিক বিনিয়োগ কর্মসূচির জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে এবং ২০ বিলিয়ন সামাজিক আবাসন কর্মসূচিতে ব্যয় করা হবে।

গত আগস্ট মাসে দেশটির ঋণ ব্যবস্থাপনা অফিস জানায়, চীন সরকার ও সহযোগী সংস্থার কাছ থেকে নেওয়া ঋণের পরিমাণ ৩০০ কোটি মার্কিন ডলার ছাড়িয়ে গেছে।

মার্চের শেষ নাগাদ নাইজেরিয়ার সরকারের মোট ঋণ দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ৯৩০ কোটি মার্কিন ডলার। গত পাঁচ বছরে দেশটির ঋণ বেড়েছে ১৫৮ শতাংশ।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গত সেপ্টেম্বর মাসে নাইজেরিয়ার মন্ত্রিসভা ২০২১ সালের বাজেটের জন্য ৩ শতাংশ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি লক্ষ্যমাত্রা এবং ১১ দশমিক ৯৯ শতাংশ মুদ্রাস্ফীতির লক্ষ্য প্রস্তাব করেছিল।

নাইজেরিয়ায় করোনা মহামারি মারাত্মক প্রভাব ফেলেছে। নাইজেরিয়ার অর্থনীতি চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে ৬ দশমিক ১ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে এবং মন্দার মুখোমুখি হচ্ছে। সরকার মনে করছে, এ বছর তাদের অর্থনীতি ৮ দশমিক ৯ শতাংশ কমবে।

মন্তব্য পড়ুন 0