default-image

ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে রাজি  হয়েছে মরক্কো। বৃহস্পতিবার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

উত্তর আফ্রিকার দেশ মরক্কো আরব লিগের সদস্য। আরব লিগের সদস্যদের মধ্যে সবশেষ তারা ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে সম্মত হলো।

মরক্কোর আগে সম্প্রতি একই পথে হাঁটে সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও সুদান। মিসর ও জর্ডানও ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে যাচ্ছে।

মরক্কো ও ইসরায়েলের মধ্যে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার প্রক্রিয়ায় যথারীতি কলকাঠি নেড়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

বৃহস্পতিবার ট্রাম্প টুইটারে ঘোষণা দেন, ইসরায়েল ও মরক্কো পূর্ণ কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে রাজি হয়েছে। এটা মধ্যপ্রাচ্যের শান্তির জন্য একটা বড় অগ্রগতি।

বিজ্ঞাপন
default-image

ওয়াশিংটনের মধ্যস্থতায় এ-সংক্রান্ত চুক্তির আওতায় বিরোধপূর্ণ পশ্চিম সাহারা অঞ্চলের ভূখণ্ডের ওপর মরক্কোর সার্বভৌমত্বের দাবির প্রতি স্বীকৃতি দিতে সম্মত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের এই স্বীকৃতিকে মরক্কোর জন্য একটা বড় অর্জন হিসেবে দেখা হচ্ছে।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু এই চুক্তিকে ‘ঐতিহাসিক’ বলে বর্ণনা করেছেন। তিনি মরক্কোর রাজা ষষ্ঠ মোহাম্মদকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

মরক্কোর রাজপ্রাসাদ থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে এই চুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়, মরক্কোর রাজা টেলিফোনে ট্রাম্পের সঙ্গে আলাপে ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের বিষয়ে সম্মত হয়েছেন।

এই চুক্তির নিন্দা জানিয়েছে ফিলিস্তিন।

আফ্রিকা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন