default-image

তানজানিয়ার প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জন মাগুফুলির প্রতি শোক ও শ্রদ্ধা জানিয়েছেন দেশটির মানুষ। সেনাবাহিনীর গাড়িতে জন মাগুফুলির মরদেহ চার্চ থেকে উহুরু স্টেডিয়ামে নেওয়া হয়। খবর এএফপির।

স্থানীয় সময় গতকাল শনিবার প্রয়াত প্রেসিডেন্টকে বিদায় জানাতে অনেকেই দার এস সালামের রাস্তায় দাঁড়িয়ে ছিলেন। তাঁদের মধ্যে কয়েকজন কাঁদছিলেন। মরদেহের প্রতি ফুলের পাপড়ি ছিটিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

ফুল বিক্রেতা পাওলিন আতোনি বলেন, ‘মরদেহ দেখার আগে বিশ্বাস করতে পারিনি, তিনি মারা গেছেন।’

তানজানিয়ায় প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট সামিয়া সুলুহু হাসান গত শুক্রবার শপথ গ্রহণ করেন। তিনি মাগুফুলির স্ত্রীর প্রতি সমবেদনা জানান।

বিয়াট্রাইস এডওয়ার্ড নামের এক ব্যক্তি বলেন, ‘তিনি খুব তাড়াতাড়ি চলে গেলেন। তাঁকে এখনো আমাদের প্রয়োজন ছিল।’

বিজ্ঞাপন

গত বুধবার মাগুফুলির মৃত্যুর খবর ঘোষণা করা হয়। এর আগে বেশ কিছুদিন তাঁর অসুস্থতা নিয়ে নানা গুজব ছড়িয়ে পড়ে। তাঁকে জনসমক্ষেও দেখা যায়নি। মাগুফুলি করোনায় সংক্রমিত বলে গুজব ছড়ায়।

বেলজিয়ামে নির্বাসিত তানজানিয়ার প্রধান বিরোধী নেতা টুন্ডু লিসু বলেছেন, মাগুফুলি এক সপ্তাহ আগে মারা গিয়েছিলেন।

মাগুফুলি করোনারোধে মাস্ক পরা বা লকডাউনের বিরোধী ছিলেন।

আফ্রিকা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন