তিউনিসিয়ায় জরুরি অবস্থা জারি করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট বেজি কেইড। গত সপ্তাহে তিউনিশিয়ার একটি বিচে বন্দুকধারীর গুলিতে ৩৮ জন নিহত হওয়ার পর এ জরুরি অবস্থা জারি করা হয়।
‘প্রেসিডেন্ট জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন এবং জাতির উদ্দেশে স্থানীয় সময় পাঁচটায় বক্তৃতা দেবেন’ প্রেসিডেন্টের কার্যালয় থেকে আজ শনিবার এমনটি জানানো হয় বলে এএফপির এক খবরে বলা হয়েছে।
তিউনিসিয়ার উপকূলীয় এলাকা সোসার সমুদ্র তীরবর্তী হোটেল সংলগ্ন বিচে গত ২৬ জুন বন্দুকধারীর হামলায় ৩৮ জন নিহত হন। এক হামলাকারী কালাশনিকভ রাইফেল নিয়ে হোটেলের সমুদ্র সৈকতে পর্যটক ও তিউনিসিয়ার নাগরিকদের ওপর গুলি চালায়। নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে গুলি বিনিময়কালে ওই বন্দুকধারী নিহত হয়।
২৬ জুনের ওই হামলা ছিল তিন মাসের মাথায় দেশটিতে পর্যটকদের ওপর দ্বিতীয় হামলা। এর আগে জাতীয় জাদুঘরে যে হামলা হয় সেটিতে ২২ জন মানুষ মারা যায়।
শুক্রবার বিবিসিকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে দেশটির প্রধানমন্ত্রী হাবিব ইসিদ স্বীকার করেন, পুলিশ ওই ঘটনার পর ব্যবস্থা নিতে সময় নিয়েছিল। এর আগে বৃহস্পতিবার ঘটনায় সরাসরি জড়িত থাকার অভিযোগে আটজনকে গ্রেপ্তার করেছে বলে জানায় তিউনিসিয়া। এর মধ্যে একজন নারীও আছেন।
পুলিশ এবং সেনবাহিনীকে বিশেষ ক্ষমতা দিয়ে এর আগেও একটি জরুরি অবস্থা অনেক দিন ধরে ছিল দেশটিতে। ২০১১ সালে প্রেসিডেন্ট জিনে আল আবেদিন বেন আলী ক্ষমতা দখলের সময় থেকে জারি হওয়া এই জরুরি অবস্থা ২০১৪ সালের মার্চ পর্যন্ত ছিল।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0