বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এর আগে বাংলাদেশ সময় রোববার সকালে দক্ষিণ আফ্রিকার রাজধানী কেপটাউনে দেশটির পার্লামেন্ট ভবনে আগুন লাগার ঘটে। আগুনে ভবনের ছাদ ধসে গেছে বলে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়। দেশটির অগ্নিনির্বাপণকর্মীরা কয়েক ঘণ্টা ধরে পার্লামেন্ট ভবনের বড় অগ্নিশিখা ও ধোঁয়া নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছেন। অগ্নিকাণ্ডে এখনো কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা এটিকে একটি ‘ভয়াবহ এবং ধ্বংসাত্মক ঘটনা’ বলে অভিহিত করেছেন। এ সময় তিনি পার্লামেন্টের কাজ অব্যাহত রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে পার্লামেন্টের ভবনগুলোর একটির ছাদের অনেক দিক থেকে আগুন ও ধোঁয়া বের হয়ে আসতে দেখা যায়। তবে ভবনটিতে আগুনের সূত্রপাত্র কীভাবে হলো, তা জানা যায়নি।

কেপটাউনের ওই পার্লামেন্টে মূলত তিনটি ভাগে একাধিক ভবন রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে প্রথম ও সবচেয়ে পুরোনো একটি ভবন। ভবনটি ১৮৮৪ সালে নির্মিত। দক্ষিণ আফ্রিকার ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি ভবনের বাকি দুটি অংশের মধ্যে একাংশ গত শতকের বিশের দশকে এবং অপর অংশটি আশির দশকে নির্মাণ করা হয়েছিল।

গত বছরের এপ্রিলে ইউনিভার্সিটি অব কেপটাউনের পাঠাগারের একাংশ আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। সেখানে সংরক্ষিত ছিল আফ্রিকার স্বতন্ত্র অনেক প্রকাশনা।

আফ্রিকা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন