বন্দুক হামলায় বুরকিনা ফাসোতে নিহত ২০

বিজ্ঞাপন
default-image

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ বুরকিনা ফাসোতে পশুহাটে অজ্ঞাত বন্দুকধারীদের হামলায় ২০ জনের মতো নিহত হয়েছেন। কেউ এই হামলায় দায় স্বীকার করেনি।

কাতারভিত্তিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, এখন পর্যন্ত কোনো পক্ষ এই হামলার দায় স্বীকার করেনি। স্থানীয় সময় শুক্রবার দেশটির পূর্বাঞ্চল ফাদা এন’গোরমার নামানগৌ গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এই হামলায় অনেকে আহত হয়েছেন।

বুরকিনা ফাসোতে আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন আল–কায়েদা ও ইসলামিক স্টেট (আইএস) সংশ্লিষ্ট গোষ্ঠী সক্রিয় রয়েছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়। দেশটির সরকার ২০১৭ সাল থেকে এসব অস্ত্রধারী গোষ্ঠীর সঙ্গে যুদ্ধ করে আসছে।

এন’গোরমার গভর্নর কর্নেল সাইদৌ সানু এক বিবৃতিতে বলেন, অজ্ঞাতপরিচয়ের সশস্ত্র ব্যক্তিরা নামানগৌ গ্রামের একটি পশুর হাটে জনগণের ওপর ওই হামলা করে। গত মে মাসে দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় আরেকটি পশুহাট কম্পিয়েঙ্গায় হামলা করে বন্দুকধারীরা। ওই ঘটনায় ২৫ জন নিহত হয়েছিলেন।

বুরকিনা ফাসোতে গত বছর সাহেল জাতির কয়েক শ মানুষকে হত্যা করা হয়। এই সহিংসতার কারণে ৫ লাখের বেশি মানুষ তাদের বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়ে গেছে, যা জাতিগত ও ধর্মীয় উত্তেজনাও বাড়িয়ে তুলেছে। এ নিয়ে গত পাঁচ বছরে সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলো দেশটিতে ৯০০ জনের বেশি মানুষকে হত্যা করেছে। জাতিসংঘের পরিসংখ্যান অনুসারে অস্থির অবস্থা বিরাজ করা বুরকিনা ফাসো, মালি ও নাইজারে গত বছর প্রায় ৪ হাজার মানুষ নিহত হন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন