default-image

সুদানের ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট ওমর আল বশিরকে বিচারের জন্য আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে (আইসিসি) পাঠানোর ব্যাপারে সম্মত হয়েছেন দেশটির নেতারা। সুদানের সরকার ও বিদ্রোহী গোষ্ঠীর নেতাদের মধ্যে এক শান্তি আলোচনায় এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওমর আল বশিরকে বিচারের জন্য আইসিসিতে পাঠানোর ব্যাপারটি নিশ্চিত করেছেন সরকারের মুখপাত্র মোহাম্মদ হাসান ইলতাইশ। তিনি বলেছেন, ‘আমরা সবাই একমত হয়েছি যে, যাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আছে তাঁদের সবাইকে আইসিসির সামনে দাঁড়াতে হবে। আমি এটি সবাইকে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিচ্ছি। ভুক্তভোগীদের ক্ষত না শুকানো পর্যন্ত ন্যায়বিচার পাওয়া সম্ভব নয়।’

গত বছরের এপ্রিল মাসে ক্ষমতাচ্যুত হন সুদানের সাবেক প্রেসিডেন্ট ওমর আল বশির। ১৯৮৯ সালে এক সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসেন তিনি। তাঁর বিরুদ্ধে আইসিসিতে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ছিল। সুদানের পশ্চিমাঞ্চলের দারফুর এলাকায় সংঘটিত যুদ্ধাপরাধ ও মানবতাবিরোধী অপরাধে তাঁকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। গত ডিসেম্বরে এক দুর্নীতির মামলায় তাঁকে দুই বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। কিন্তু সুদানের আইন অনুযায়ী, ৭০ বছরের বেশি বয়সের কাউকে কারাভোগ করতে হয় না। ওমর আল বশিরের বয়স এখন ৭৬ বছর।

বিজ্ঞাপন
আফ্রিকা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন